২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজারে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত ৩৫ যুবক

https://beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2019/08/5654547-1200x630.jpg

বিয়ানীবাজারে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সাথে জড়িতদের শনাক্ত করেছে পুলিশ। দীর্ঘদিন থেকে পৌরশহর ও আশপাশ এলাকা থেকে মোটর সাইকেল চুরির সাথে যুক্ত রয়েছে উপজেলার ৩৫ যুবক। পুলিশ এর মধ্যে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

বিয়ানীবাজার থেকে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটসহ অপরাধের যুক্তদের তালিকা করেছে থানা পুলিশ। শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযানে নামবে আইনশৃংখলা বাহিনীর একাধিক দল। পুলিশের সর্বশেষ তালিকা ব্যাপক যাচাই-বাছাই শেষ হলে অভিযান শুরু হবে পুলিশের নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে। মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের তালিকায় উপজেলা ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানরা রয়েছে।

যদিও পবিত্র ঈদুল আযহার পূর্বে পুলিশ বিয়ানীবাজারের অন্তত: ৮জন মোটর সাইকেল চোরকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। গ্রেফতারকৃত ওই মোটর সাইকেল চোরদের স্বীকারোক্তি এবং পুলিশের নিজস্ব তদন্তের মাধ্যমে করা এই তালিকায় পৌরশহরসহ উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের চোরদের পৃথক তালিকা করা হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্র জানায়, গত তিন মাসে বিয়ানীবাজার পৌরশহরসহ আশপাশ এলাকা থেকে কমপক্ষে ৩০টি মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরি যাওয়া মোটর সাইকেলের অধিকাংশ মালিক থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করেননি। তবে অনেকেই অভিযোগ দায়ের করে সর্বশেষ অগ্রগতি জানতে দায়িত্বশীলদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছেন। মোটর সাইকেল চোরদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান চলাকালে গত ০৯ আগস্ট পিএইচজি সরকারি স্কুল মাঠের গরুর হাট থেকে নয়াগ্রামের ব্যবসায়ী মারুফ আহমদের মোটর সাইকেল চুরি গেছে। এতে পুলিশ আরো কঠোর মনোভাব নিয়ে আটঘাট বেঁধে নামছে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটদের বিরুদ্ধে অভিযানে।

চুরির ঘটনায় মোটর সাইকেল মালিকদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। সেটা ক্রমান্বয়ে বাড়ছেই। জিপিএস ট্র্যাকার, ডিস্ক লক, সিকিউরিটি এলার্ম কিংবা ইঞ্জিন ইমোবিলাইজার সেন্সর সিস্টেম-কোনো প্রযুক্তিই চুরি থামাতে পারছেনা। এমনকি সিসিটিভি ফুটেজ দেখেও চোরকে শনাক্ত করা যায়নি। ফলে ভিন্ন পদ্ধতি অনুস্মরণ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বশীলরা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চোররা তথ্য-প্রযুক্তির দিক দিয়েও এগিয়ে। তারা রপ্ত করেছে এ সকল পদ্ধতি অকেজো করার কৌশল। এছাড়া দেখতে স্মার্ট ও শিক্ষিত হওয়ায় চট করে চোর বলে সন্দেহ না করার সুযোগ নিচ্ছে উঠতি বয়সি এসব অপরাধীরা।

গত মাসে সিলেটের নবাগত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিনের ডাকে আহুত মতবিনিময় সভায় একাধিক বক্তা মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন। এরপর থেকে বেশ নড়েচড়ে বসে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী। মোটর সাইকেল চোরদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে নানা তৎপরতা চালাচ্ছে তারা। এদের মধ্যে ১৬/১৭ বছর বয়সী কিশোররাও রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ইতোমধ্যে ৩৫ জনের একটি তালিকা তৈরি করে মাঠে নেমেছে আইনশৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনী। এই ৩৫ জনই বিয়ানীবাজার উপজেলাজুড়ে মোটর সাইকেল চুরি করে মানুষের ঘুম হারাম করে দিচ্ছে।

একটি সূত্র জানায়, পুলিশের করা তালিকায় আলীনগর ইউনিয়নের ৪ জন, চারখাইয়ের ৩জন, শেওলার ২ জন, দুবাগের ৩ জন, কুড়ারবাজারের ৪ জন, পৌরএলাকার ৮ জন, মাথিউরার ৪ জন, তিলপাড়ার ২ জন, মোল্লাপুরের ৪ জন ও লাউতার ৩ জন মোটর সাইকেল চুরির সাথে জড়িত। এরা সবাই পেশাদার এবং সক্রিয়। এই চিহ্নিত চোরদের সাথে পৌরশহরের একাধিক মোটর সাইকেল মেকানিকও জড়িত রয়েছেন বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ।

বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অবণী শংকর কর জানান, ঈদের আগে আমরা পৃথক অভিযানে ৩টি মোটর সাইকেল উদ্ধারের পাশাপাশি ৯ জন চোরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। গ্রেফতারকৃতদের দেয়া বক্তব্য যাচাই-বাছাই শেষে তালিকানুযায়ী আমরা অভিযানে নামবো।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জকিগঞ্জ সার্কেল) সুদিপ্ত রায় জানান, আমরা বেশ কয়েকজনের নাম জেনেছি। এ বিষয়ে ব্যাপক তদন্ত চলছে। তালিকা চুড়ান্ত হলেই আমাদের অভিযান শুরু হবে।

“বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রথম ২৪ ঘন্টার টেলিভিশন ABtv’ র অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল, সাবস্ক্রাইব করে দেখতে থাকুন প্রতিদিনকার বিয়ানীবাজারের ঘটনাপ্রবাহ”নিচের লিঙ্কটি ক্লিকের মাধ্যমে সহজেই সাবস্ক্রাইব করতে পারবেন ABtv
Subscribe: http://bit.ly/2OOvJad
A+ A-

সর্বশেষ সংবাদ

বিয়ানীবাজারে ইউএনওকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিলো পল্লীবাউল লোক সংগীতালয়

বিয়ানীবাজারের শহীদটিলা-কাজিরবাজার রাস্তার বেহাল দশা, চরম জনদুর্ভোগ

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মাওলানা শিহাব উদ্দিন আলীপুরী

১০৯ থেকে খবর পেয়ে বাল্যবিয়ে ঠেকালেন ইউএনও

বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৭ গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট- সিলেট জেলা চ্যাম্পিয়ন গোলাপগঞ্জ

সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়- ফটকের সামনেই ময়লার ভাগাড়

ঘোষণাঃ

Translate »