২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জাতীয় শোক দিবস- বিয়ানীবাজারে বিভক্ত আওয়ামী লীগের পৃথক আয়োজন

https://beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2019/08/54332322-1200x630.jpg

দেশের অধিকাংশ এলাকায় আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভক্তি থাকলেও বিয়ানীবাজার আওয়ামী লীগ ছিল ঐক্যবদ্ধ। কিন্তু গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচন থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিরোধ দেখা দেয়। যা বর্তমানে চরম আকার ধারণ করেছে। ডাক সাইটের অধিকাংশ নেতা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক দায়িত্বশীল আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধাচারণের অভিযোগ থাকায় দলের মধ্যে দেখা দিয়ে অর্ন্তকলহ । দলের মধ্যে চাপা থাকা বিভক্তি প্রকাশ্যে দেখা দেয় যা গত ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন অনুষ্ঠানে।

জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাসিব মনিয়া ২২ জুলাই সভা আহবান করলেও সে সভায় যোগ দেননি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী আতাউর রহমান খান। তবে ২৩ জুলাই আতাউর রহমান খান পৃথক সভার মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেন।

নৌকার পক্ষের উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খানের নেতৃত্বে ১৫ আগস্ট দুপুর ২টায় শোক র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছেন। এ আয়োজনের সাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি অংশকে দাওয়াত দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। জাতির জনকের প্রকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পনের মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হবে। দিনব্যাপী শোকর‌্যালি আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করা হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাসিব মনিয়া বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে জাতীয় শোক দিবস পালনের কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। আমরা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত শোক দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দেব।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান খান বলেন, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নৌকা বিরোধীদের সাথে কোন অনুষ্ঠান আয়োজন করার পক্ষে আর নেই। গত উপজেলা নির্বাচনে যারা নৌকার বিপক্ষে কাজ করেছে উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ তাদের বয়কট করেছে। আমি মনে করি এখন সময় এসেছে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিশেষ করে জাতির জনকের কন্যার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যারা অবস্থান নিয়েছে, রাতের আঁধারে নৌকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে তাদের মুখোশ উন্মোচন করার। তিনি বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস পালন করার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। এসব অনুষ্ঠানে নৌকা বিরোধীদের কোন জায়গা থাকবে না। তিনি বলেন, গত উপজেলা নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে যারা কাজ করেছেন, নৌকার পরাজয় নিশ্চিত করতে যারা ষড়যন্ত্র করেছেন- তাদের বিষয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দলের সভানেত্রী ও জাতির জনকের কন্যার কাছে আমরা আবেদন করেছি।

গত উপজেলা নির্বাচনে নৌকার পক্ষে নিজের শক্ত অবস্থানের কথা ব্যক্ত করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাসিব মনিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ আর নৌকাকে কোন অবস্থায় পৃথক করা সম্ভব নয়। এটা যে বা যারা করেছে তারা দলের ক্ষতি করছে। তিনি বলেন, গত নির্বাচনে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক দায়িত্বশীলকে সাথে নিয়ে কাজ করেছি। নৌকার অফিস উদ্বোধন ও গণসংযোগ করেছি। আমার বিরুদ্ধে যারা অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে তাদের অবস্থান পরিষ্কার নয়। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, গত ২২ জুলাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভায় আসার জন্য সাধারণ সম্পাদকের (আতাউর রহমান খান) সাথে আমি যোগাযোগ করেছি। বার বার যোগাযোগ করা হলেও তার কাছ থেকে সন্তোষজনক জবাব পাইনি। তিনি সভায়ও আসেননি।

 

A+ A-

সর্বশেষ সংবাদ

বিয়ানীবাজারে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু

ভয়াল ২১ আগস্ট : বিয়ানীবাজারে আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

মৌলভীবাজার জেলার এডিসি হলেন কানাইঘাটের ইউএনও তানিয়া

সিলেটের হারিছ চৌধুরীসহ দন্ডিত ১৬ জন ধরা-ছোঁয়ার বাইরে

বিয়ানীবাজারের চারখাইয়ে পাল্টাপাল্টি হামলার অভিযোগ- আটক ১

বিয়ানীবাজারে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত ৩৫ যুবক

ঘোষণাঃ

Translate »