বিয়ানীবাজারে মাত্র ১৫ দিনের ব্যবধানে রাতের আধাঁরে বসতঘরের ভেতর থেকে আবারও একটি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের কালাইউরা গ্রামের চার কিয়ারি বাড়ির বাসিন্দা ও থানা বাজারের ব্যবসায়ী ফখরুদ্দিনের বাড়িতে এই চুরি সংঘঠিত হয়। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ফখরুদ্দিন।

ভুক্তভোগী ফখরুদ্দিন জানান, সোমবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বসতঘরের ভেতরের প্যাসেজে তিনি তার নতুন কেনা লাল রংয়ের  ডিসকভার ১১০ সিসির (সিলেট হ-১৫১৮৫০) মোটারসাইকেল রেখে ঘুমাতে যান। সকাল ৭টার ডিকে ঘুম থেকে উঠে তিনি তাঁর ঘরের প্যাসেজের মধ্যে মোটরসাইকেলটি দেখতে পাননি এবং প্রধান ফটকের কলাপসিবল গেইটের তালা ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পান। তার ধারণা, ভোররাতের কোন একসময় চুরেরা গাড়ি দুইটি নিয়ে যায়।

এর আগে গত ২৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের কালাইউরা গ্রামের ফখরুল ইসলামের বসতবাড়ির বারান্দার গ্রীলের তালা ভেঙ্গে বারান্দায় রাখা দুইটি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করলে মোটরসাইকেল উদ্ধারে নামে থানা পুলিশ। এরপরে পরদিন রাতে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের দাসগ্রাম এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় চুরি যাওয়া দুটি মোটরসাইকেলের মধ্যে একটি উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে, সাম্প্রতিক সময়ে বিয়ানীবাজারে মোটরসাইকেলের চোরচক্র বেশ সক্রিয় হয়ে উঠেছে। রাতের আঁধারে বসতঘরের ভেতরেও মোটরসাইকেল নিরাপদ না থাকায় উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রয়েছেন স্থানীয়রা।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

কমিটি ছাড়াই ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করলো বিয়ানীবাজারের ছাত্রলীগ