সিলেট-জকিগঞ্জের সড়ক ও জনপথের দুটি প্রধান সড়ক বেহাল দশা। বিধ্বস্ত ওই সড়ক দুটি পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের কার্পেটিং, ইটের খোয়া, পাথর ও বিটুমিন উঠে স্থানে স্থানে তৈরি হয়েছে খানাখন্দের। ফলে সড়কে ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করছে যানবাহন। ঘটছে দুর্ঘটনা। যাত্রীরা পোহাচ্ছেন চরম দুর্ভোগ।

জকিগঞ্জ উপজেলাবাসীর দুর্ভোগ লাঘব করতে বিভিন্ন উপায়ে কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন সংসদের বিরোধীদলীয় হুইপ ও সিলেট-৫ আসনের সাংসদ সেলিম উদ্দিন। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের সংস্কার কাজের জন্য একনেক ১৭৮ কোটি টাকা বরাদ্ধ করেছে।

বৃহস্পতিবার সিলেটভিউ২৪ডটকম’র সম্পাদক ও প্রকাশক শাহ্ দিদার আলম চৌধুরী নবেলের সভাপতিত্বে সিলেটভিউ’র প্রতিনিধি সম্মেলনের কর্মশালা পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি জানান, জকিগঞ্জের সড়কের বেহালদশা এবং যাত্রীদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে একাধিক বার বিরোধীদলীয় নেত্রীর সাথে কথা বলেছেন। জাতীয় সংসদে কথা বলেছেন জকিগঞ্জের সমস্যার কথা বলেছেন।

তিনি আরো জানান, সংসদে তিনি বারবার জকিগঞ্জের সড়কের উন্নয়নের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেছেন। এমনকি তিনি প্রধানমন্ত্রীর সাথেও এই বিষয়ে কথা বলেছেন বলে জানান।

তার প্রচেষ্টাতেই সম্প্রতি এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় জকিগঞ্জ-চারখাই সড়কের জন্য ১৭৮ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে বক্তব্যে উল্লখ করে হুইপ সেলিম।

জকিগঞ্জবাসীর দুঃখ কষ্ট লাঘবে এমন প্রকল্প সুফল বয়ে আনবে বলে মনে করছেন জকিগঞ্জের সর্বস্তরের জনতা। জকিগঞ্জবাসী এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এবং সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, শাহগলী থেকে জকিগঞ্জ পর্যন্ত প্রায় ৪৫ কিলোমিটার সড়কের ছোট বড় অসংখ্য গর্তের কারণে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। প্রতিদিন এ সড়কের গর্তে যানবাহন আটকা পড়ে। বেহাল দশার কারণে সড়ক দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত বহু লোকজন এ দুটি সড়কে প্রাণ হারিয়েছেন এবং আহত হয়েছেন শতাধিক। জকিগঞ্জ-সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ এ দুটি সড়ক বর্তমানে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। এর আগে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় হুইপ, সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিন’র ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় রাস্তাগুলো সংস্কার হয়েছিলো।