সিলেট জেলার ১৩টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ভূমি ও গৃহহীন ১ হাজার ৪০৬টি পরিবারের ঠাঁই হলো প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণ করা বাড়ি ‘স্বপ্ননীড়ে’। আগামী শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বাড়িগুলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রথম দফা উদ্বোধন হওয়া ঘরগুলোর মধ্যে বিয়ানীবাজারের ৫০ এবং গোলাপগঞ্জের ৭০টি পরিবার রয়েছে।

এ প্রকল্পের আওতায় সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় তৈরি হচ্ছে ভূমি ও গৃহহীন ৪ হাজার ১৭৮ মানুষের মাথা গোঁজার ঠাঁই ‘স্বপ্ননীড়’। পর্যায়ে ক্রমে এসবঘরগুলো ভূমিহীনদের মধ্যে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকালে সিলেট জেলা প্রশাসকের হল রুমে এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক কাজী এম. এমদাদুল ইসলাম।

এ সময় তিনি জানান, সিলেটে ৪ হাজার ১৭৮ পরিবার পাচ্ছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। প্রধানমন্ত্রীর উপহারের নিজস্ব ঠিকানা স্বপ্নের নীড় পাচ্ছে তারা। ইতোমধ্যে ১৪০৬ টি ঘর প্রস্তুত করে উপকারভোগীদের সমঝিয়ে দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে আগামী শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ১ হাজার ৪০৬টি ঘরের চাবি তুলে দেওয়া হবে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এগুলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই দিন সকাল সাড়ে ৯টায় সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ে এর উদ্বোধন অনুষ্ঠান হবে। এদিকে বাকি ঘরগুলোও নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, দেশের বিপুলসংখ্যক ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষকে নিজস্ব ঠিকানা অর্থাৎ জমির মালিকানাসহ সরকারী খরচে নির্মিত বাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের সামনে আরেকটি মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে যাচ্ছেন। প্রতিটি ঘর নির্মাণে খরচ হচ্ছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। প্রতিটি ঘরে দুটি কক্ষ, একটি রান্নাঘর ও একটি বাথরুম রাখা হচ্ছে।

সিলেট জেলার মধ্যে সিলেট সদরে ১৪৪টি, দক্ষিণ সুরমায় ১২০টি, বিশ্বনাথে ৬৬৯টি, ওসমানীনগরে ৫৩৩টি, বালাগঞ্জে ৮৭৫টি, বিয়ানীবাজারে ১০৪টি, গোলাপগঞ্জে ২০০টি, ফেঞ্চুগঞ্জে ১৩০টি, গোয়াইনঘাটে ৫০০টি, কানাইঘাটে ১৯৪টি, জৈন্তাপুরে ৩৩০টি, জকিগঞ্জে ১৩০টি এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ২৫০টি ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার।

তার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন, সিলেট সদরে ১৭টি, দক্ষিণ সুরমায় ১৫টি, বিশ্বনাথে ১২০টি, ওসমানীনগরে১৪০টি, বালাগঞ্জে ১৪০টি, বিয়ানীবাজারে ৫০টি, গোলাপগঞ্জে ৭৭টি, ফেঞ্চুগঞ্জে ৭২টি, গোয়াইনঘাটে ২৫০টি, কানাইঘাটে ১৯৪টি, জৈন্তাপুরে ১২০টি, জকিগঞ্জে ৫৫টি, কোম্পানীগঞ্জ ১১৭টি।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজার হাসপাতালের বারন্দা ও মেঝেতে রোগীদের ঠাঁই