আত্মহত্যা করেছেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। তার মৃত্যু পুরো বলিউডকে নড়িয়ে দিল! বলিউডের পরিবারতন্ত্র নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। অনেক তারকাও এই ক্ষোভে অংশ নিয়েছেন।

সবখানে প্রশ্ন উঠছে কেন এভাবে অভিমানে চলে গেলেন সুশান্ত? কেউ বলছেন ক্যারিয়ারের হতাশা, কেউ বলছেন পরিবারতন্ত্রের মারপ্যাঁচ আবার কেউ বা দাবি করছেন প্রেম ঘটিত যন্ত্রণা সইতে না পেরে মৃত্যুর কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন সুশান্ত।

এদিকে সুশান্তের এই মৃত্যু রহস্য নিয়ে বলিউডে তৈরি হচ্ছে সিনেমা। অভিনেতার ব্যক্তিগত এবং ক্যারিয়ারের উত্থান-পতন নিয়েই তৈরি হবে সিনেমাটি। বিশেষ করে সুশান্তের মৃত্যুরহস্য তুলে ধরা হবে ছবিতে।

সেই অনুযায়ী ছবির নামও রাখা হয়েছে, ‘সুইসাইড অর মার্ডার- অ্যা স্টার ওয়াজ লস্ট’। এটি পরিচালনা করবেন শমীক মৌলিক। প্রযোজনা এবং ভাবনা বিজয় শেখর গুপ্তার। প্রথমবার ছবি প্রযোজনা করছেন তিনি। চিত্রনাট্য লিখবেন রাকেশ কুমার।

তবে একে বায়োপিক বলতে নারাজ বিজয় শেখর গুপ্তা। এপ্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ‘অনেক অভিনেতাই রয়েছেন যারা বুক বেঁধে অনেক আশা নিয়ে সিনে ইন্ডাস্ট্রিতে আসেন। স্ট্রাগলও কম করেন। পরবর্তীতে দেখা যায় বড় মানের প্রজেক্টের পরিবর্তে অন্য কোনো কাজ করতে হয় তাদের। ধূলিস্যাৎ হয়ে যায় তাদের স্বপ্ন। আমরা এমন একটা গল্প বলতে চাই যেখানে দেখানো যাবে কীভাবে ছোট শহর থেকে এসে কোনও অভিনেতা-অভিনেত্রী গডফাদার ছাড়াই বলিউডে স্ট্রাগল করে।’

অন্যদিকে, কমল আর হাসান সুশান্তের বায়োপিক প্রযোজনা করার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা করে ট্রোলড হয়েছেন। কারণ, তিনিই বলেছিলেন ‘কেদারনাথ’ উত্তরাখণ্ডে নিষিদ্ধ করার জন্য সুশান্ত সিং রাজপুতই দায়ী। এমনকী, সেসময়ে অভিনেতাকে নিয়ে তিনি কদর্য মন্তব্য করতেও ছাড়েননি। সেই সব কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা।

এবিটিভির সর্বশেষ  প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজার ফুচকা ব্যাবসায়ীদের কাছে স্বাস্থ্যবিধির চেয়ে জীবন-জীবিকাই মূখ্য