সিলেটে জমকালো অনুষ্ঠানে সিলেট সিক্সার্সের জার্সি আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করলেন পাকিস্তানের বিশ্বসেরা বোলার ওয়াকার ইউনুস। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় জার্সি উন্মোচনকে ঘিরে বদলে গিয়েছিল সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের দৃশ্যপট। আতশবাজির ঝলকানিতে বর্ণিল হয়ে উঠেছিল সেখাকার আকাশ। সিলেট সিক্সার্সের বোলার হান্টে বাছাইকৃত ৮২ জনের মধ্য থেকে সেরা ১০ ফিউচার সিক্সার্স চূড়ান্ত করার দায়িত্ব দেয়া হয় পাক তারকা ক্রিকেটার ওয়াকার ইউনুসকে। এ গুরুকাজ সম্পাদনের জন্য তিনি মঙ্গলবার সিলেট আসেন। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বিকেল পর্যন্ত সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বোলারদের বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন। সন্ধ্যার পর ঘোষণা করা হয় সেরা ১০ ফিউচার সিক্সার্সের নাম। সেরা দশজনের মধ্যে সাতজন পেসার ও তিনজন স্পিনার রয়েছেন। নির্বাচিত পেসাররা হচ্ছেন- আহাদুর রহমান অভি, সফর আহমেদ, সুলতান আহমেদ, সাইফুল ইসলাম, তোফায়েল আহমদ, রুমান আহমদ ও জয়নুল ইসলাম। তিন স্পিনার হলেন- নাঈম আহমেদ, ইসহাক আলী ও নাঈম আহমেদ সাকিব। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও কোচ ওয়াকার ইউনুসকে কাছে পাওয়া একটি বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছেন আগামীদিনের বোলাররা। ওয়াকার নিরাশ করেননি ক্ষণিকের শিষ্যদের। ট্রায়ালের ফাঁকে ফাঁকে সুযোগ পেলেই তিনি বোলারদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছেন। দিনের শুরুতেই ৮২ জন থেকে ২৮ জনে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে সাতজন পেসার ও তিনজন স্পিনারসহ মোট ১০ জনকে সেরা নির্বাচন করা হয়।

সিলেট সিক্সার্সের এ আয়োজন আগামীর তারকা তৈরির উৎস হিসেবে দেখছেন ওয়াকার ইউনুস। বোলারদের পাশাপাশি এভাবে ব্যাটসম্যানও বাছাই করা যেতে পারে। নিয়মিত এ ধরনের আয়োজন অব্যাহত রাখার তাগিদ দেন তিনি। তিনি বলেন, ‘আমি খুব

ছোট্ট শহর থেকে এভাবেই এসেছি। যে কারণে আমি জানি এ ধরনের উদ্যোগের গুরুত্ব। কারণ শহর কিংবা প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছেলেদের জন্য নিজেকে প্রকাশের এটা একটা বড় সুযোগ।