দীর্ঘ কয়েক বছর থেকে দুর্ভোগে সড়কে চলাচল করা জকিগঞ্জ বাসীর দুর্ভোগ অবশেষে লাঘব হচ্ছে। একই সাথে লাঘব হচ্ছে বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের পূর্ব অঞ্চলের অধিবাসীদের। সড়ক ও জনপথ সিলেট অধিদপ্তর এ সড়কের সংস্কার ও পুনর্বাসনের জন্য ব্যয় করবে ১৭২ কোটি টাকা। সর্ব সাধারণের প্রশ্ন- সঠিক মানে সংস্কার কাজ হবে তো?

এসড়ক সংস্কারের জন্য গত চলতি বছরের জুন মাসে সিলেট ৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিন এমপি’র ডিওলেটার দিয়েছিলেন। এছাড়া সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বন্যা ক্ষতিগ্রস্থ অতি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের তালিকা জমা দেন যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে। তার সে তালিকায় ২ নম্বরে ছিল সিলেট-বিয়ানীবাজার-জকিগঞ্জ সড়ক। তাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দীর্ঘ সময় পর সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে সওজ। গত ২৩ অক্টোবর এ সড়ক সংষ্কারের জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে টেন্ডার গ্রহণ করা হয়েছে। শীঘ্রই টেন্ডার ড্রপ করে সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে সড়ক সংষ্কারের জন্য নিয়োগ দেয়া হবে।

চলতি বছরের কয়েক দফা বন্যা ও অতি বর্ষণে সিলেট-বিয়ানীবাজার-জকিগঞ্জ সড়কের নাজুক অবস্থা আরও নাজুক হয়েছে। সড়কের কিলোমিটারের পর কিলোমিটার খানাখন্দ ও গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। কংকাল সার এ সড়ক দিয়ে সাধারণ মানুষ চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। প্রায়ই সড়কের অতি ক্ষতিগ্রস্থ অংশে ঘটছে দুর্ঘটনা।

জকিগঞ্জের কালীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আব্দুছ ছালাম বলেন,  ওই টেখার আধা টেখা দিয়া যদি কাজ-খাম খরা অয়- তাইলে আমরার রাস্তাখান ফুরাফুরি বালা অইজিবো। কিন্তু হাছা খতা ওইলো তাইনতাইন ইতা টেখা ছড়খের খামো লাগাইবানি। একই কথা বলেন হাতিটিলা এলাকার যুবক আব্দুল আহাদ। তিনি বলেন, আসলে সরকারিভাবে যে কাজ হয় সেখানে দুর্নীতির ছড়াছড়ি থাকে। এসব  দুর্নীতিতে যুক্ত থাকেন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সরকারি কর্মকর্তা ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। যার কারণে এক বছরের আগেই সড়ক ভেঙ্গে বেহাল হয়ে পড়ে। কলেজ ছাত্র আলীম উদ্দিন বলেন, ২০১২ সালে ঢাকার হাতিরঝিল এলাকায় সেনাবাহিনী সড়ক তৈরী করেছিল। আজ পর্যন্ত একটি খোয়াও উঠেনি। আর আমাদের এলাকায় সড়ক সংষ্কারের দিন মাসের মধ্যেই বেহাল আকার ধারণ করে।

সিলেট সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী উৎপল সামন্ত বলেছেন, সড়কের ঠিকাদার নিয়োগ দেয়ার জন্য টেন্ডার নেয়া হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী সবার সম্মুখে ট্রেন্ডার খোলা হবে। সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে ঠিকাদার নিয়োগ দেয়া হবে। তিনি বলেন, যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশে আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে সড়কের সংস্কার কাজ শুরু করবো। কোন ধরনের অনিয়ম হলে দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হবে।