নগরীর কদমতলীর কেন্দ্রিয় বাস টার্মিনালে তাজমহল রেস্টুরেন্ট এর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে হামলা, সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে  বিএনপির নেতা আবুল কালাম বাহিনীর হামলার শিকার হয়ে আহত কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগ নেতা শাহীমন আহমদ শাহীনকে ঢাকা পাঠানো হচ্ছে । এদিকে বাসটার্মিনাল থেকে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

ছাত্রলীগ নেতাকে আশংকা জনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য এ্যায়ার অ্যাম্বুলেন্স যোগে ঢাকায় পাঠনো হচ্ছে। এ ঘটনায় চরম উত্তেজন বিরাজ করছে। যেকোন ফের সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

দুরপাল্লা সহ আঞ্চলিক সড়কের সকল যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। বিগত সময় সর্বসাধারনের বাস টামির্সনালের এক অংশে রহস্যজনকভাবে কথিত লিজ নিয়ে রেস্টুরেন্ট গড়ে তোলেন বিএনপির নেতা আবুল কালাম। এ রেস্টুরেন্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সংঘর্ষ েএর ঘটনা ঘটে।

সম্প্রতি টার্মিনালের লিজ নেন যুবলীগ নেতা মিছবাহ সহ একটি গ্র“প। তারপর উচ্চ আদালতে রিট করে তাজমহল রেস্টুরেন্ট এর নিয়ন্ত্রন গ্রহন করেন। কিন্তু বসে থাকেননি পরিবহন ব্যবসায়ী কালাম। তিনি পরিবহন শ্রমিক নেতা কথিত মুক্তিযুদ্ধা ফলিক আহমদকে সাথে নিয়ে রিট আইনীভাবে মোকাবেলা করে পুনরায় রেস্টুরেন্ট এর নিয়ন্ত্রন নিতে সর্বশক্তি প্রয়োগ করেন। গতকাল দুপুরে সাবেক লিজ গ্রহিতা মিছবাহ পক্ষ নিয়ে কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগ নেতা শাহীন আহমদ সহ একদল ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতাকর্মী তাহমহল এর নিয়ন্ত্রন বিষয়ে খোজখবর নিতে আসলে। কালাম এর নির্দেশে তাদের উপর অর্তকিত হামলা চালায়। এতে শাহীন সহ অন্যরা গুরুতর আহত হন। ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছে। এদিকে কালাম ্ও ফলিক বিষয়টিকে ভিন্নখাতে প্রভাবরে লক্ষ্য শ্রমিক দের ব্যবহার করে ফায়দা লুটার চেস্টা করছেন বলে অভিযোগ প্ওায়া গেছে। তারা ব্যক্তি স্বার্থে পরিবহন চলাচল বন্ধ রেখেছেন। যেকারনে দুরদুরান্তের যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

মঙ্গলবার বেলা ২ টায় দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। এতে শাহীনুর রহমান শাহীন (৩০) আহমদ নামের এক হামলাকারী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে নেওয়ার কথা রয়েছে। এ ঘটনায় আরোও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহত শাহীনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তবে এখন তাকে ওসমানী মেডিকেলের আইসিইউতে রাখা হয়েছে। পরে সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। তবে এখনো তাকে ঢাকাতে নেয়া হয়নি। স্বজনরা তাকে ঢাকায় প্রেরণের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল বলেন- কদমতলিতে হোটেলে তাজমহলে একদল যুবক হামলা-ভাংচুর করেছে। এসময় দু’পক্ষের মারামারিতে একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। প্রসঙ্গত, হোটেল তাজমহল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলে আসছে।