সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান আর নেই। তিনি গত এক সপ্তাহ থেকে সিলেটের মাউন্ড এডোরা হাসপাতালে লাইফ সাপোর্ট ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তাঁর চিকিৎসায় দায়িত্বরত ডাক্তাররা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. নাসির উদ্দিন খান।
মরহুমে জানাযার নামাজ শুক্রবার দুপুর ২.৩০ মিনিটের সময় আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. লুৎফুর রহমান গত ১৬ জুলাই করোনা আক্রান্ত হন। এরপর দীর্ঘদিন মাউন্ড এডোরা হাসপাতালের সাধারণ কেবিনে চিকিৎসা নিয়ে তিনি সুস্থ হয়ে বাসায় ফেরেন। গত আগষ্টের শেষ সপ্তাহে হঠাৎ করে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মাউন্ড এডোরা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর শারিরীক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে হাসপাতালে আইসিউতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি মারা যান।

বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এড. নাসির উদ্দিন খান, কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সরওয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল বারী, প্রচার সম্পাদক এড. আব্বাছ উদ্দিন, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খান, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আবুল কাশেম পল্লব, পৌরসভার ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মেয়র আব্দুস শুকুর। পৃথক শোক বার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এবিটিভির বিশেষ প্রতিবেদন

বিয়ানীবাজারের জলঢুপ সড়কের ‌ছালতা গাছের মোড় এখন মরণ ফাঁদ! প্রাণ হারালেন শিক্ষক