তারা পেশাদার মাদক করাবারি। কিন্তু মানুষের কাছে তারা নিজেদের র‌্যাবের লোক পরিচয় দিত। সিলেটের গোয়াইনঘাট, জৈন্তিয়া ও কোম্পানিগঞ্জ এলাকায় র‌্যাবের কথা বলে বিভিন্ন জনের থেকে বিপুল অংকের টাকা আদায় করত তারা। বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পৌঁছে র‌্যাবের কাছে। এরপর অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে এসব এলাকায় গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায় র‌্যাব। গোয়েন্দা নজরদারিতে উঠে আসে তাদের অপকর্ম।

এরপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নগরীর খাদিমনগর বাগানবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকসহ র‌্যাব এই তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। এরা হচ্ছে- গোয়াইনঘাট উপজেলার ছৈলাখেল গ্রামের মৃত আনসার আলী খানের ছেলে জাকির হোসেন (৫২) ও জিয়াউল খান ওরফে জিয়ারত (৪৩) ও একই উপজেলার কালিনগর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে রাশেদ পারভেজ ওরফে লাভলু (৩৬)। এসময় তাদের নিকট থেকে ৩০ বোতল ফেনসিডিল, ২৮ বোতল অফিসার্স চয়েস ও ৬ বোতল বিয়ার উদ্ধার করা হয়। এছাড়া মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকারও জব্দ করা হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাব ৯ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল আবু মুসা মো. শরীফুল ইসলাম পিএসসি, মেজর শওকাতুল মোনায়েম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিউল আলম।

বুধবার রাতে র‌্যাব-৯ এর গণমাধ্যম বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমন তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত মাদক কারবারিরা দীর্ঘদিন ধরে র‌্যাবের কথা বলে বিভিন্ন জনের থেকে বিপুল অংকের টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে। জব্দকৃত আলামতসহ তাদের বিরুদ্ধে মাদক মামলা দায়ের করে সংশি¬ষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে বোরো ধান ও রবিশস্যের বীজ সহায়তা পেলেন সাড়ে ৩ হাজার কৃষক