চৌহাট্টায় সংঘর্ষের জেরে আজ সোমবার থেকে ডাকা পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছেন পরিবহন শ্রমিকরা।

রোববার সন্ধ্যায় সিলেট সিটি করপোরেশনে পরিবহন শ্রমিকদের সাথে সিটি করপোরেশন (সিসিক) কর্তৃপক্ষের মতবিনিময় সভায় ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন তারা।

সিলেট নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় অবৈধ মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে পরিবহন শ্রমিক ও সিসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় গাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় এই কর্মসূচি দিয়েছিলেন শ্রমিকরা।

গত বুধবার সন্ধ্যায় সিলেট জেলা বাস মিনিবাস মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়েছিলেন সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ময়নুল ইসলাম।

ওইদিন দুপুরে নগরের চৌহাট্টায় অবৈধ মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড উচ্ছেদে গিয়ে হামলার মুখে পড়েন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরা। এরপর সিটি করপোরেশন কর্মীদের সাথে পরিবহন শ্রমিবদের সংঘর্ষ বাঁধে।

এদিকে চৌহাট্টায় সংঘর্ষের ঘটনায় ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ৩০০ জনকে আসামি করে ৩টি মামলা করা হয়েছে।

এরমধ্যে একটি মামলার বাদী সিসিকের উপ-সহকারি প্রকৌশলি দেবপদ রায়। অন্য দুটি মামলার বাদী পুলিশ। পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলা দুটির একটি হলো পুলিশের ওপর হামলা ও অপরটি অস্ত্র আইনের মামলা।

এসব বিষয়ে রোববার সন্ধ্যায় পরিবহন শ্রমিকদের সাথে সিটি মেয়র-কাউন্সিলরসহ সিলেটের বিশিষ্ট নাগরিকরা বৈঠকে বসেন। এই বৈঠকে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দেন পরিবহন শ্রমিকরা। একইসঙ্গে তারা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

ছেলে অসুস্থ, দিশেহারা মা-বাবা : পাশে দাঁড়ালো বিয়ানীজারের ‘স্পন্দন’