সিলেটের তিন পৌরসভায় নির্বাচন আগামী ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী মাসের প্রথম দিকে নির্বাচনের তফশীল ঘোষণা হতে পারে। এরই মধ্যে সকল প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। ২০২১ সালের জানুয়ারি, ফেব্রæয়ারি ও মার্চে পৃথক সময়ে তিন পৌরসভার মেয়াদ উত্তীর্ণ হলেও ডিসেম্বেরে এক সাথে নির্বাচন শেষ করা হবে। ১৬ই ডিসেম্বরের মধ্যেই ভোট গ্রহণ শেষ করার লক্ষে কাজ করছে নির্বাচন কমিশন। সিলেটের সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়সল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, আগামী বছরের প্রথমদিকে সিলেটের গোলাপগঞ্জ, কানাইঘাট ও জকিগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনের মেয়াদ শেষ হবে। তাই আগামী ডিসেম্বরেই নির্বাচনযোগ্য তিন পৌরসভার নির্বাচন একসাথে অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে নির্বাচন, শপথ গ্রহণ ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখসহ বিস্তারিত তথ্য সিলেট থেকে ঢাকায় নির্বাচন কমিশনে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনের জন্য ভোটার তালিকাও চুড়ান্ত করা হয়েছে।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানা যায়, সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ পৌরসভাটি ‘ক’ শ্রেণির। এই পৌরসভার মেয়াদ পূর্ণ হবে আগামী বছরের ৩০ জানুয়ারি। ‘গ’ শ্রেণির কানাইঘাট পৌরসভার মেয়াদ পূর্ণ হবে আগামী ২ মার্চ। তাছাড়া ‘গ’ শ্রেণির তালিকাভুক্ত জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়াদ পূর্ণ হবে আগামী ১২ ফেব্রæয়ারি। অন্যদিকে বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়াদ উত্তেীর্ণ হবে ২০২২ সালের ২২ মার্চ। তাই নির্বাচনযোগ্য গোলাপগঞ্জ, কানাইঘাট ও জকিগঞ্জ পৌরসভার তথ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে নির্বাচনযোগ্য এই তিন পৌর সভার ভোটার তালিকাও চুড়ান্ত করা হয়েছে। জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছেন ২২ হাজার ৮৪১জন। এর মধ্যে ১১ হাজার ৫৮২ জন পুরুষ ও ১১ হাজার ২৫১ জন মহিলা। কানাইঘাট পৌরসভায় মোট রয়েছেন ১৯ হাজার ৭৫৩ জন। এর মধ্যে ১০ হাজার ১৪১ জন পুরুষ ও ৯ হাজার ৬১২ জন। এছাড়া জকিগঞ্জ পৌরসভায় ভোটার আছেন ১২ হাজার ৪৬২ জন। এর মধ্যে ৬ হাজার ১১০ জন পুরুষ ও ৬ হাজার ৩৫২ জন মহিলা।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়সল কাদের জানান, এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে কমিশন থেকে জানানো হয়নি। তবে ১৬ই ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন শেষ করতে কাজ করছে নির্বাচন কমিশন। আগামী মাসেই তফসীল ঘোষণা হতে পারে।

এবিটিভির প্রতিবেদন-

জকিগঞ্জের রসুলপুরে বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এলাকাবাসীর মতবিনিময়