সিলেটে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে থেমে থেমে চলছে বৃষ্টিপাত। রাতেও জেলার বিভিন্ন স্থানে ঝরছে বৃষ্টি। সোমবার দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে সিলেটে- ১২৭ মিলিমিটার। এ বৃষ্টির ফলে কিছুটা বেড়েছে সিলেটের নদ-নদীগুলোর পানি।

দুদিন আগে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র বলেছে- সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ ও সিলেট জেলা সদরের নদ-নদীগুলোতে পানি দ্রুত বাড়ছে। চলতি সপ্তাহেই এখানকার নদী-তীরবর্তী ও পাহাড়ি এলাকাগুলোতে স্বল্প স্থায়ী বন্যা শুরু হতে পারে। তবে বিভাগের হাওরাঞ্চলে ফসল না থাকায় বন্যার পানিতে খুব বেশি ক্ষতির আশঙ্কা নেই।

তবে সর্বশেষ পূর্বাভাসে আবহাওয়া অফিস বলছে- আগামী দু’দিন বৃষ্টিপাত কমবে। এরপর ফের বাড়বে।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন- মৌসুমী বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিম বঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

এই অবস্থায় মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা পর্যন্ত সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভবে মাঝারী ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।

অন্য এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- সিলেট অঞ্চল সমূহের উপর দিয়ে দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘন্টায় ৪৫-৬০ কি.মি. বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। তবে আগামী দুদিন পর বৃষ্টিপাত কমবে। আর বর্ধিত পাঁচদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা ফের বাড়বে।

‌বিয়ানীবাজারে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিশ্চিতকরণে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন সংযোগ