সকাল থেকে বিদ্যুৎ নেই, পৌরশহর কিংবা গ্রামীন এলাকায়। শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে আষাঢ়ের বৃষ্টির সাথে অল্প সময় ধমকা হাওয়া বয়ে যায়। এরপর থেকে বিকাল ৫,১০ মিনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ ছিলনা!

দিনের শেষ সময়ে বিদ্যুৎ আসায় কিছুটা স্বস্থি দেখা দেয় পৌরশহরের ব্যবসায়ী ও আগন্তকদের মধ্যে। কিন্তু বিধিবাম মাত্র ২০ মিনিট স্থায়ী থাকে বিদ্যুৎ।

বিয়ানীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ ডিজিএম অভিলাশ চন্দ্র পাল বলেন, আমি এখন ঢাকায়। তবে যতটুকু জেনেছি বৈরী আবহাওয়ার কারণে ৩৩ কেবিতে ত্রুটি দেখা দেয়। সুনামপুরের হাওরের সরববাহ লাইনে ত্রুটির কারণে বিদ্যুৎ নেই। অল্প সময়ের মধ্যে আবার চালু হয়ে যাবে।

আষাঢ় মাসে নিম্নচাপের কারণে টানা বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে। এমন পরিস্থিতি প্রত্যেক বছর মুখোমুখি হতে হয় এ দেশের মানুষকে। বন্যাও দেখা দেয়। এ সময়ে আবহাওয়ার বৈরীতার বিষয়টি সবারই জানা। অথচ পল্লীবিদ্যুৎ নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে আবহাওয়াকে ঢাল হিসাবে ব্যবহার করছে- এ প্রশ্ন স্কুল শিক্ষক আবু তাহেরের।