বিয়ানীবাজার পৌরসভার ব্যস্ততম কলেজ রোডের বেহাল দশার অবসান করতে যাচ্ছে পৌরসভা। শীঘ্রই আরসিসি ঢালাইয়ের মাধ্যমে কলেজ রোডের দুর্ভোগ লাঘবে সড়ক পুর্নভাসন করবে বিয়ানীবাজার পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। সড়ক সংস্কােরের পাশাপাশি দুই পাশে ড্রেন নির্মাণ করা হবে।

কলেজ রোড সংস্কারের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট দপ্তর অনুমোদন দিয়েছে। সংষ্কার কাজের বিজ্ঞপ্তি প্রদান ও ঠিকাদার নিয়োগ শেষে আগামী ডিসেম্বর মাসে কাজ শুরু হবে বলে পৌর কর্তৃপক্ষ ধারণা করছেন। সড়ক সংষ্কারের পাশাপাশি সড়কের উভয় পার্শে্ব সাড়ে ৩ফুট প্রশস্ত ড্রেন নির্মাণ করা হবে।

পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, কলেজ রোডের মোড় থেকে কলেজ মসজিদ পর্যন্ত আরসিসি ঢালাই করা হবে। একই সাথে সড়কের উভয় পার্শে্ব প্রশস্থ ড্রেন নির্মাণ করা হবে। একই প্রকল্পের আওতায় টিএনডটি রোডের অবশিষ্ট অংশের সংস্কার কাজ করা হবে।

২০১৫ সালে কলেজ রোডের প্রথম আধা কিলোমিটার সংস্কার কাজ করে বিয়ানীবাজার প্রকৌশল অফিস। সড়ক সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার তিন মাসের মাথায় ভাঙ্গন দেখা দেয়। অল্পদিনের মধ্যে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। ব্যস্ততম এ সড়কের সৃষ্ট গর্তগুলোর বিশাল আকার ধারণ করে। প্রকৌশল অফিস থেকে মাটি দিয়ে গর্ত ভরাট করা হলে কলেজ রোডের দুর্ভোগ লাঘব হয়নি। চলতি বছর পৌরসভা সড়কের গর্তে ইট সুরকি ফেলে। সাময়িক এ সংস্কারে কিছুটা হলেও যান চলাচলে গতি আসে।

বিয়ানীবাজার পৌরসভার নকশা ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত সহকারি প্রকৌশলী) আশরাফুল ইসলাম বলেন, সড়ক সংস্কার কাজে অনুমোদন পাওয়া গেছে। আমরা ব্যয় প্রাক্কলন তৈরী করছি। আশা করছি আগামী ডিসেম্বর মাসে কাজ শুরু করা যাবে। তিনি বলেন,  সড়ক সংস্কার কাজে প্রাথমিক অনুমান ৪৫ লাখ টাকা ব্যয় হবে। আগামী নভেম্বর মাসে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সড়ক সংষ্কার কাজের জন্য ঠিকাদার নিয়োগের জন্য টেন্ডার আহবান করবেন।

বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র আব্দুস শুকুর বলেন, আমরা যা করবো টেকসই করবো। পৌরবাসী ও ব্যবসায়ীদের আশার প্রতিফলন ঘটাতে আমরা কাজ শুরু করেছি। কলেজ রোডের কাজ করা হবে স্থানীয়দের পরামর্শ নিয়ে। আশা করি পৌরবাসী ও ব্যবসায়ীরা আমাদের পূর্ণ সহযোগিতা করবেন। তিনি বলেন, সকলের সহযোগিতা ও সচেতনাই পারে পৌরশহরকে আবর্জনা মুক্ত একটি সুন্দর পরিচ্ছন্ন শহর উপহার দিতে। পৌরসভা পরিচ্ছন্ন শহর গড়ার লক্ষ্যে এরই মধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।