শনিবার (১৪ জুলাই) বিয়ানীবাজারের প্রাচীন দেবপীঠ শ্রীশ্রী বাসুদেব মন্দির প্রাঙ্গণে শ্রীশ্রী বাসুদেব’র প্রথম রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন জেলা হতে বহু পন্ডিত ও ভক্তজনের আগমণ ঘটবে।

বিকেল ৪ টায় ভক্তগণ কাঠের রথে করে খোল,করতাল বাজিয়ে হরিনাম কীর্তনের মাধ্যমে বাসুদেব বিগ্রহকে নিয়ে ঠাকুর দিঘীর চতুরপার প্রদক্ষিণ করবেন।

প্রসঙ্গত, হিন্দু রাজত্বের সময় পঞ্চখন্ডের সুপাতলা গ্রামে জয়ন্তীয়া রাজের দুর্গাদলই নামের এক কর্মচারী বাস করতেন। তাঁর বসত বাড়ির সামনে একটি প্রাচীন পুকুর ছিল। সেই পুকুরে জল থাকতো না। দুর্গাদলই ঐ পুকুর খনন কালে একটি বাসুদেব ও একটি দুর্গামূর্তি পান। কথিত আছে, দুর্গাদলই দেবী মূর্তিটি শক্তি উপাসক জয়ন্তীয়া রাজকে পূজার জন্য পাঠিয়ে দেন। আর বাসুদেব মূর্তিটি বিজয়কৃষ্ণ পাঠক নামের স্থানীয় একজন ব্রাহ্মণ কে নিত্য পূজার জন্য প্রদান করেন। সেই সময় থেকে অর্থাৎ খৃষ্টীয় ৭ম শতাব্দী থেকে শঙ্খ চক্র গদা পদ্মধারী (চতুর্ভূজ) ত্রিবিক্রম বিষ্ণু পূজিত হচ্ছেন। ঐ সময় থেকেই প্রতি বছর আষাঢ় মাসে শ্রীশ্রী বাসুদেবের প্রথম রথযাত্রা এবং এক সপ্তাহ পরে উল্টো রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

রথযাত্রা উৎসবের উদ্ভোধন করবেন বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র আব্দুস শুকুর। রথযাত্রা অনুষ্ঠানে সনাতন ধর্মালম্বীদের উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন রথযাত্রা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক কান্তি চক্রবর্তী ও সদস্য সচিব অরুণাভ পাল চৌধুরী মোহন।