সিলেট মহানগর পুলিশের নবনিযুক্ত কমিশনার নিশারুল আরিফ বলেছেন, সিলেটে পুলিশ হেফাজতে রায়হান হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি অপ্রত্যাশিত, অনভিপ্রেত। এর সাথে পুলিশ সদস্যরা জড়িত থাকায় আমি লজ্জিত। এই ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার এসাইনমেন্ট নিয়েই আমি সিলেটে এসেছি। মঙ্গলবার রাতে নগরের আখালিয়ায় পুলিশের নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের বাড়িতে গিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এমনটি বলেন সিলেটের নতুন পুলিশ কমিশনার।

তিনি বলেছেন, এই ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত বহিস্কৃত এসআই আকবর হোসেন ভূইয়াকে ধরতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চলছে। অনেকগুলো বাহিনী তাকে ধরার চেষ্টা করছে। তাকে পালাতে যেসব পুলিশ সদস্যরা সহায়তা করেছে তাদেরও বিচারের আওতায় আানা হবে। তিনি বলেন, অপরাধীর প্রধান পরিচয় সে অপরাধী। সে কোনবাহিনীর সদস্য এটা বিবেচ্য নয়।

সিলেট মহানগর পুলিশের কমিশনারের দায়িত্ব পাওয়ার পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেট এসে পৌছেন নিশারুল আরিফ। সিলেট এসে শাহজালাল (র.) ও শাহপরান (র.) মাজার জিয়ারতের পরই তিনি রায়হানের বাসায় চলে যান। সেখানে প্রথমে রায়হানের পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান এবং ন্যায় বিচারের আশ্বাস দেন। এরপর গণমাধ্যমের সাে কথা বলেন তিনি।

পলাতক এসআই আকবরের বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে নতুন পুলিশ কমিশনার বলেন, আকবরের এসব কর্মকাণ্ড যদি কেনো পুলিশ কর্মকর্তা প্রশ্রয় দিয়ে থাকে, সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমানের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত ১১ অক্টোবর সিলেটেোর বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতনে খুন হন রায়হান আহমদ (৩৪)। চাঞ্চল্যকর এই মামলায় বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়ির দুই সদস্য টিটু চন্দ্র দাস ও হারুনুর রশীদকে গ্রেপ্তারর করে রিমান্ডে নিয়েছে পিবিআই। এছাড়া এসআই আকবরসহ ৫ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে। পলাতক রয়েছেন রায়হানকে নির্যাতনের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির বহিস্কৃত ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া।

এ ঘটনায় সমালোচনার মুখে গত বৃহস্পতিবার সিলেটের পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়াকে বদলি করা হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা শাখা থেকে বদলির প্রজ্ঞাপনের ভিত্তিতে সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়াকে পুলিশের স্পেশাল প্রোটেকশন ব্যাটালিয়নের (এসপিবিএন) ডিআইজি পদে বদলির পর নিশারুল আ‌রিফকে তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা নিশারুল আরিফ এস‌পি‌বিএন-এর উপ-পু‌লিশ মহাপ‌রিদর্শক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ২০১৯ সালের অক্টোবরে রাজশাহী রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি থাকাকালীন সময়ে ডিআইজি পদে পদোন্নতি পান তিনি। এরপর ওই বছরের ৯ ডিসেম্বর এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে নিশারুল আরিফকে এসপিবিএনের উপ-মহাপরিদর্শক হিসেবে পদায়ন করা হয়।