শনিবার দিবারাত প্রায় সাড়ে ১২টা। পাসপোর্ট সাইজের দুটি ছবি নিয়ে বিয়ানীবাজার উপজেলার মাথিউরা ইউনিয়নের নালবহর বাজারে ঘুরছেন দুই যুবক। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের ছবি দুটো দেখিয়ে তাদের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করছেন। কিন্তু সকলের কাছে একটাই উত্তর- ‘চেনা চেনা মনে হচ্ছে, তবে ঠিক চিনতে পারছি না।’

তখন কথা হয় এই প্রতিবেদকের সাথে। আলাপকালে দুই যুবকের একজন জানান, তার নাম রাজন আহমদ। বাড়ি তিলপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিন সদরপুর গ্রামে। শনিবার দুপুরে ঢাকাদক্ষিণ থেকে সিএনজি অটোরিকশাযোগে বাড়ি ফেরার পথে চন্দুরপুর বাজারে একটি মোটরসাইকেল তাদের গাড়িটিকে অভারট্রেক করে। পরে কিছুটা রাস্তা অতিক্রম করার তারা রাস্তায় একটি মানিব্যাগ কুড়িয়ে পান এবং হাতে নিয়ে মানিব্যাগের ভেতরে তিনটি ছবি দেখতে পান। এর মধ্যে একজন মধ্যবয়স্ক পুরুষ ও মহিলা, অন্য আরেকটি ২৫-২৬ বছরের যুবকের ছবি রয়েছে। মানিব্যাগে মোটামুটি পরিমাণ কিছু অঙ্কের টাকা এবং কিছু বিদেশী টাকা রয়েছে।

মানিব্যাগে অন্য কোন ডকুমেন্টস না থাকায় তিনি দুঃশিন্তায় পড়ে যান। এই মানিব্যাগ মালিকের কাছে পৌছে দিতে চান, তবে কিভাবে কি করবেন ভেবে পাচ্ছেন না। তবে ছবি তিনটির মধ্যে পুরুষ ও যুবক সিএনজি অটোরিকশাকে অভারট্রেক করা মোটরসাইকেলে দেখেছেন বলেও জানান তিনি। রাজন বলেন, এরপর আমি চন্দরপুর বাজার, তিলপাড়া বাজার, দাসউরা বাজার, মাটিজুরা, নালবহর বাজার, ঈদগাহ বাজারসহ বেশি কিছু এলাকায় গিয়ে ছবি দুটো দেখিয়ে তাদের পরিচয় জানার চেষ্টা করেছি, কিন্তু পাইনি।

আলাপকালে তিনি এই প্রতিবেদককে পুরুষ ও যুবকের ছবি দুটো দিয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের অনুরোধ জানান রাজন আহমদ। যদি কেউ উপরোক্ত ছবি দুটোর ব্যক্তিদ্বয়কে চিনতে পারেন তাহলে এই মুঠোফোন নম্বরে (০১৭৩৯-৬৪৯৯৭৭) যোগাযোগ করে টাকাসহ মানিব্যাগ ফেরত দেবার সুযোগ করে দিতে সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

সিলেটে হাফ ম্যারাথন, আয়োজন মাতান চলচ্চিত্র অঙ্গণের তারকারা