যুক্তরাজ্যে বসবাসরত শ্রীধরাবাসীর সাথে মত বিনিময় করেছেন বিয়ানীবাজার পৌরসভার আগামী নির্বাচনে মেয়রপ্রার্থী হাজী আব্দুল কুদ্দুছ টিটু।

লন্ডনের স্থানীয় সময় বুধবার রাতে লন্ডনের গ্রান্ড রসুই পাটি হলে শ্রীধরা ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে’র অন্যতম উপদেষ্টা রফিক উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও বিয়ানীবাজার জনকল্যান সমিতি ইউ কের সাধারন সম্পাদক কমিউনিটি এক্টিভিষ্ট আব্দুল আহাদ ও কবির মাহমুদের যৌথ পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন বিয়ানীবাজার ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের কোষাধক্ষ্য আব্দুল শফিক ,সহ সভাপতি সাহেদ আহমদ, বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আসিক আহমদ পুতুল, আব্দুস সালাম, শ্রীধরা ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের সাধারন সম্পাদক আহমদ মোস্তাক, যুগ্মসম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সল উদ্দিন,কমিউনিটি এক্টিভিষ্ট কবির মাহমুদ ,বিয়ানীবাজার পৌর উন্নয়ন সংস্থার সাধারন সম্পাদক নুরুজ্জামান , আব্দুল জলিল ,বিয়ানীবাজার ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে’র কার্যকারী সদস্য সেলিম আহমদ, শ্রীধরা ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের কোষাধক্ষ্য আব্দুল বাতিন প্রমুখ ।

 

সভায় বক্তারা আব্দুল কুদ্দুছ টিটুর সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ডের ভূয়সী প্রশংসা করে বিগত পৌরসভার নির্বাচন আদায়ে সংগ্রাম পরিষদের পক্ষে আইনী পদক্ষেপ গ্রহন, জনমত গঠনে তার ভূমিকার কথা স্মরণ করেন। একজন সফল সংগঠক হিসেবে আব্দুল কুদ্দুছ টিটুকে বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচনে নৌকা প্রতীক প্রদানের জন্য দলের সভানেত্রী, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং সিলেট – ৬ আসনের সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদের প্রতি আহবান জানান।

 

বক্তারা প্রবাসী অধ্যুসিত বিয়ানীবাজার পৌরসভাকে দুর্নীতিমুক্ত ,জবাবদিহিতামুলক ও উন্নত মডেল পৌরসভায় রুপান্তরিত করতে আব্দুল কুদ্দুছ টিটুর মত সৎ ,উদ্যমী ও সৃজনশীল নেতৃত্বের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন ।

হাজী আব্দুল কুদ্দুছ টিটু তার বক্তব্যে বলেন দীর্ঘ তিন যুগ থেকে গণমানুষের কল্যানে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি । আমার দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন কর্মী হিসেবে জননেএী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড জনগনের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়ার নিরলস কাজে লিপ্ত রয়েছি । আমি একজন দলীয় কর্মী হয়ে ও দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে গনমানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচিছ। দেড় যুগ পর আইনী লড়াইয়ের মাধ্যমে অর্জিত বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচন বিষয়ে সংগ্রাম পরিষদ ও প্রবাসীদের অবদানসহ সঠিক সত্য তুলে ধরেন। তিনি বিয়ানীবাজার নির্বাচন আদায় সংগ্রাম পরিষদের পক্ষে দীর্ঘ দুই বছর কাজ করতে পারার জন্য নিজেকে গর্বিত মনে করছি । তিনি বলেন, গত পৌরসভা নির্বাচনে দল আমাকে মনোনয়ন দেয়নি তাই নির্বাচনে প্রার্থী হইনি। আশা করছি সকলের সহযোগিতা ও সমর্থনে দল এবার আমাকে মনোনয়ন প্রদান করবে। উপস্থিত হয়ে উৎসাহ ও সহযোগিতার জন্য গ্রামের সবার প্রতি তিনি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আবু কাওসারের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জুবায়ের লিমন,এমদাদুল হক কাজল ,লিমন আহমদ,কয়েস আহমদ,আলম হোসেন ,আলমগীর হোসেন,জুবের মুনিম ,লুৎফুর রহমান প্রমুখ । সভাশেষে সবাই নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেন।