১৬ ডিসেম্বর। মহান বিজয় দিবস৷ দীর্ঘ ন’মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ শেষে বিজয়ের রক্তিম সূর্য ছিনিয়ে আনার আনন্দে উদ্বেলিত হওয়ার দিন। সারাদেশের ন্যায় সিলেটের জকিগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে দিনটি। শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, পতাকা উত্তোলনসহ নানা আয়োজনে বিভক্ত ছিলো উপজেলা প্রশাসনের অনুষ্ঠানসূচী।

দুপুরে ‘জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে মুক্তি চেতনা ধারণ ও ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহারের মাধ্যমে জাতীয় সমৃদ্ধি অর্জন’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমী আক্তার।

সহ শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম মিয়ার সঞ্চালনায় শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো আব্দুন নূর। স্বাগত বক্তব্য দেন সমাজ সেবা কর্মকর্তা বিনয় ভুষন দাস।

প্রধান অতিথি হিসেবে এসময় বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা রওশন শ্যামলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী খলিল উদ্দিন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আকরাম আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম আলী হায়দার, জকিগঞ্জ বিয়ানীবাজার সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদিপ্ত রায়, সহকারী কমিশনার ভূমি পল্লব হোম দাস, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফুল হক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুস সালাম, অফিসার ইনচার্জ মীর মোহাম্মদ আব্দুন নাসের, ওসি তদন্ত সুশংকর পাল, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুল আহাদ, সাধারণ সম্পাদক সার্জেন্ট বেলাল আহমদ প্রমূখ।

সভায় বক্তারা বলেন- ‘জীবনের মায়া ভূলে দেশের জন্য জীবন উৎসর্গ করে যে নজির গড়েছেন এ দেশের মুক্তিসেনারা, আজও তা বাঙ্গালীর প্রাণে-প্রাণে প্রেরণার সঞ্চার করে৷’ উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান করেন অতিথিবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, এবছর করোনা ঝুঁকি থাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিজয় দিবসের সকল আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নেন মানুষজন।