চলতি বছরেই অনুষ্ঠিত হবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন বিয়ানীবাজার উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। দলীয় মনোনয়নের লবিং ছাড়াও এলাকায় বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে নিজেদের জনপ্রিয়তা জানান দেওয়ার চেষ্টা করছেন অনেকেই। নানা প্রতিশ্রুতির মাধ্যমে ভোটারদের কাছে টানার চেষ্টা চালাচ্ছেন এসব প্রার্থীরা। নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার-প্রচারণা, মতবিনিময়, শোডাউন ও গণসংযোগসহ নানা তৎপরতায় বাদ যাচ্ছে না উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নও। সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজেদের অবস্থান জানান দিতে নানা কৌশলী পন্থা অবলম্বন করে যাচ্ছেন।

এমনই একজন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হচ্ছেন ব্যবসায়ী ও রাজনীতিক আব্দুল ওয়াহিদ তারেক। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যুবসমাজের শক্তি নিয়ে তিনি বেশ কিছুদিন ধরে মুড়িয়া ইউনিয়নে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

শনিবার বিকালে আব্দুল ওয়াহিদ তারেকের নেতৃত্বে ইউনিয়নের অফিস বাজার থেকে যুবসমাজের অংশগ্রহণে মোটরসাইকেল শোডাউনটি বের হয়। কয়েশ’ মোটরসাইকেল বহরের শোডাউন ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের রাস্তা প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রা শেষে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে সারপারবাজার ও নয়াগ্রাম এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেছেন আব্দুল ওয়াহিদ তারেক।

গণসংযোগকালে তিনি নাগরিকদের মৌলিক অধিকার আদায়, অবকাঠামোগত উন্নয়ন, কৃষি ও শিক্ষার উন্নয়ন, দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠনসহ সুন্দর, স্বচ্ছ, বঞ্চনাহীন একটি আলোকিত সমাজ গঠনের মধ্য দিয়ে মুড়িয়াকে একটি ডিজিটাল ও মডেল ইউনিয়নে রূপান্তরিত করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, আব্দুল ওয়াহিদ তারেকের বাড়ি মুড়িয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রামে। তিনি বর্তমানে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছেন। দায়িত্ব পালন করছেন মুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি তৃণমূলের সমর্থন নিয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

সাফল্যের চতুর্থ বর্ষে পূর্ব সিলেটের জনপ্রিয় টেলিভিশন এবিটিভি