ভাষা সৈনিক, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সিলেট জেলা গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, গণতান্ত্রিক, সমতাভিত্তিক একটি অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠার আন্দোলনের অগ্রসৈনিক, বরেণ্য রাজনীতিবিদ জননেতা আব্দুল হামিদের ১৭তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে ।

এ উপলক্ষে শনিবার গণতন্ত্রী পার্টি সিলেট জেলা কমিটির উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ১ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর কদমতলী জামে মসজিদে জমায়েত হয়ে মরহুমের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও কবর জিয়ারত, ফাতেহা পাঠ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। পরে পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাৎ ও কুশল বিনিময় করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি, প্রবীণ রাজনীতিবিদ ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আরশ আলী, গণতন্ত্রী পার্টি, সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি মোঃ আরিফ মিয়া, সহ সভাপতি প্রকৌশলী আইয়ূব মিয়া, মাসুম আহমদ, আসাদ খান, সাধারণ সম্পাদক জুনেদুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গুলজার আহমদ, ঐক্য ন্যাপ সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস বাবুল, মরহুম আব্দুল হামিদের পরিবারের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন পুত্র এম এ হান্নান, এমএ মান্নান, সমাজসেবী নাসির উদ্দিন, সাংবাদিক সিরাজুল ইসলাম, সাংবাদিক এম আহমদ আলী, গণতন্ত্রী পার্টি সিলেট জেলা কমিটির দপ্তর সম্পাদক আজিজুর রহমান খোকন, শংকর ঘোষ, দুলাল আহমদ, কালা মিয়া, হাসান বক্ত চৌধুরী প্রমুখ ।

দেশ বরণ্য এ রাজনীতিবিদের সম্মানে ২০১৬ সালের ১০ নভেম্বর হুমায়ূন রশীদ চত্বর থেকে কদমতলী পর্যন্ত বাইপাস সড়কটির নামকরণ করা হয়। সড়কের নামকরণের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি।

প্রসঙ্গত, জননেতা প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ এবি মিডিয়া গ্রুপের অন্যতম পরিচালক মো. মোসলেহ উদ্দিন খানের শ্বশুড়।