শীতের শুরুতে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার করোনার সংক্রমন ঠেকাতে সরকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য কঠোর নির্দেশনা জারি করেছে। সবাইকে মাস্ক ব্যবহার সহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জী মাঠপর্যায়ে সচেতনতা মূলক কার্যক্রম শুরু করেছেন।

গত সোমবার আলেম উলামাদের সাথে মতবিনিময়ের পর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার চতুল বাজারে করোনা থেকে জনসাধারণকে সচেতন করার জন্য মাস্ক বিতরণের পাশাপাশি সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য বাজারে সচেতনা মূলক কার্যক্রম চালান নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জী। এ সময় তিনি ভোক্তা অধিকার আইনে বাজারের দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ৬ হাজার টাকা এবং মাস্ক না পরার কারনে ৩ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে নগদ ৪’শ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা শীত মৌসুমে বেড়েই চলছে। করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি সবাই যাতে করে মাস্ক পরেন এক্ষেত্রে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আমরা সচেতনা মূলক কার্যক্রম শুরু করেছি এবং সবাইকে মাস্ক পরা সহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি। এখন থেকে জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহার করতে মোবাইল কোর্টে জরিমানার পাশাপাশি উপজেলার প্রত্যেকটি হাটবাজারে অভিযান চালানো হবে। শীঘ্রই সকল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে আমরা বৈঠকে বসবো, বাজারে যারা কেনাকাটার জন্য আসবেন তাদেরকে মাস্ক পরে আসতে হবে, এক্ষেত্রে ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দকে আমরা বিভিন্ন ধরনের সু-পরামর্শ প্রদান করব। তিনি বলেন, সরকার যাতে করে আমরা সবাই ভালো থাকি এজন্য সবপদক্ষেপ নিয়েছেন, ইতিমধ্যে সকল সরকারি অফিসে নো-মাস্ক, নো-সার্ভিস কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

প্রসজ্ঞতে যে, দেশে করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরুতে কানাইঘাটে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যু সহ কয়েক’শ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। শীতের শুরুতে গত এক সপ্তাহে নতুন করে কানাইঘাটে ৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে।