এবার সিলেটে জেঁকে বসেছে শীত। রাতে কুয়াশার সঙ্গে হালকা বাতাস শীতের মাত্রা আরও বেড়েছে। শীতের এই রাতে কেউই ঘরের বাহিরে থাকতে চায় না। তবে কিছু মানুষ শুধু ঘরের বাইরেই থাকে না, রাত জেগে পুলিশের পাশাপাশি জীবন-জীবিকার তাগিদে পাহারার কাজটিও করছেন তারা। এমন কিছু মানুষ প্রতিরাতেই নৈশ্য প্রহরী হিসেবে নিয়মিত পাহারা দিয়ে যাচ্ছেন বিয়ানীবাজার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। এসব শীতার্ত মানুষের মধ্যে মানবতার হাত প্রসারিত করে দিয়েছেন পুলিশ।

শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন বাজারে পাহারারত নৈশ্য প্রহরীদের মধ্যে শীতবস্ত্র তুলে দিয়েছেন বিয়ানীবাজার থানা পুলিশের দায়িত্বশীলরা। তীব্র শীতে গরম জামাকাপড় পেয়ে থানা পুলিশ সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন এসব নৈশ্য প্রহরীরা।

বিয়ানীবাজার থানার ওসি হিল্লোল রায় বলেন, এই শীতের রাতে যারা বাড়িতে গরম জামাকাপড় জড়িয়ে আরামে ঘুমালেও ঠাণ্ডায় রাত জেগে পুলিশ ছাড়া শুধুমাত্র বিভিন্ন বাজারের ভবন ও মার্কেট এবং শপিংমলসহ বিভিন্ন স্থানে পাহারা দিচ্ছেন নৈশ্য প্রহরীরা। যারা রাত জেগে পাহারা দিয়ে তারা কনকনে শীতকেও হার মানাচ্ছেন। শীতকে ভাগাভাগি করার জন্য দুঃস্থ অসহায় বাজার পাহারাদারদের মাঝে পুলিশ সুপার মহোদয়ের পক্ষ থেকে শীতের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে এসব গরম জামাকাপড় তুলে দেয়া হয়েছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

ইউপি নির্বাচন নিয়ে 'এবি টিভি'র বিশেষ আয়োজন ‘ভোটের হাওয়া’।। ৮ম পর্বে দুবাগ ইউনিয়ন