যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের প্যাটারসন সিটিতে বাসিন্দাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সিটি নির্বাচনে ২ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলম্যান পদে দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী বিয়ানীবাজারের কৃতিসন্তান শাহীন খালিক। একই সাথে মঙ্গলবার তার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

প্যাটারসনবাসীর প্রতি কৃত্তজ্ঞতা প্রকাশ করে এক বার্তায় কাউন্সিলম্যান শাহিন খালিক বলেন-

‘সম্মানীত প্যাটারসনবাসী, আস্সালামু আলাইকুম

বিজয় আমার, বিজয় আপনার, বিজয় প্রবাসী বাংলাদেশিদের। ২য় বারের মত আমাকে পুননির্বাচিত করার জন্য সবাইকে জানাই ধন্যবাদ, ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা। আগামীকাল সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে ২৩৬ ইউনিয়ন এভিনিউতে আমার শপথ গ্রহণের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি। সেই সাথে আসুন- বাংলাদেশ কমিউনিটির ঐক্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে, ভাতৃত্বের বন্ধন রচনায়, প্রবাসে আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের উদ্দেশ্যে- হাতে হাত রেখে অনাদি অনন্ত সুন্দর প্রবাস বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার করি। আপনাদের সবার মঙ্গল কামনা করছি। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ সবাইকে মাস্ক পরার অনুরোধ জানাচ্ছি। নিরাপদে থাকুন, সবাই সুস্থ থাকুন। জাজাকাল্লাহ।’

এর আগে নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া শাহীন খালিক প্যাটারসনে বসবাসকারী সকল কমিউনিটিসহ প্রবাসী বাংলাদেশিদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এসময় তিনি বলেন, আমি আমার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে ঐকবদ্ধভাবে কাজ করব। প্যাটারসনকে সুপরিকল্পিতভাবে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন শহরে রূপান্তরিত করার উদ্যোগ গ্রহণ করব।

প্রসঙ্গত, গত ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত প্যাটারসন সিটি নির্বাচনের ফল আনুষ্ঠানিকভাবে ২০ নভেম্বর প্রকাশ করা হয়। এতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্যাটারসন সিটির কাউন্সিলম্যান নির্বাচিত হন শাহীন খালিক। তার বাড়ি বিয়ানীবাজার উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের টিকরপাড়া গ্রামে। তিনি ১৯৯০ সালে সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে এসে নিউজার্সির প্যাটারসনে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। তিনি নিউজর্সি প্রবাসী বাংলাদেশীদের সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান নিউজার্সি হেলপ সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি এবি মিডিয়া গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালকদের মধ্যে অন্যতম। তিনি বাংলাদেশ ও আমেরিকায় বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজে জড়িত আছেন।