বড়লেখায় স্বামীর সঙ্গে পূর্ববিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন আলেয়া বেগম নামে এক নারীর ওপর হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রবিবার (১০ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে উপজেলার সোনাতোলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। আহত আলেয়া বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। আলিয়া বেগম উপজেলার সদর ইউনিয়নের সোনাতোলা গ্রামের আব্দুল আলিমের স্ত্রী।

এই ঘটনায় আলেয়া বেগম উপজেলার সদর ইউনিয়নের সোনাতোলা গ্রামের মৃত আত্তর আলীর ছেলে এমাদ উদ্দিন ইউনুসসহ ৫ জনের নামোল্লেখ করে বড়লেখা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ পেয়ে ঘটনাটি তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সদর ইউনিয়নের সোনাতোলা গ্রামের আব্দুল আলিমের সঙ্গে একই এলাকার এমাদ উদ্দিন ইউনুসসহ বিবাদীদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলছে। ঘটনার দিন রাতে বিবাদীরা আলেয়ার স্বামী আব্দুল আলিমকে মারার জন্য তার বাড়িতে ঢুকে করে তাকে গালাগালি করেন। এসময় আব্দুল আলিম বাজারে ছিলেন। আলিমের স্ত্রী ঘরের বাইরে বেরিয়ে গালাগালির কারণ জানতে চাইলে বিবাদীরা আলেয়া বেগমের ওপর হামলা চালায়। এসময় তারা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছুরি দিয়ে কোপ দিলে তার হাতে লেগে মারাত্মকভাবে জখম হয়। পরে বিবাদীরা তাকে ব্যাপক মারধর করে। আলেয়ার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় রাতেই আলেয়া ৫ জনের নামোল্লেখ করে বড়লেখা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে জমির হোসেন ও নাজু বেগম দম্পতির কৃষি আঙিনা