বড়লেখার পাহাড়ি এলাকার প্রভাবশালী মেম্বারের বাহিনীর সন্ত্রাসীরা তারাবিহ’র নামাজ থেকে ধরে নিয়ে এক যুবকের পায়ে গুলি ও এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (২৮ মে) রাতে বড়লেখা সদর ইউপি’র ডিমাই বাজারে। বর্তমানে মারাত্মক আহত যুবক মিছবাউল হক (২৬) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে েআশংকাজনক অবস্থায় চিতিৎসা নিচ্ছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীসহ একাধিক সূত্র জানায়, বড়লেখা সদর ইউপি’র মেম্বার ও ডিমাই এলাকার বাসিন্দা সিরাজ উদ্দিনের বাহিনী কামরুল গংদের সাথে বিদ্যুতের খুঁটি বসানো নিয়ে মধ্যডিমাই গ্রামের নিরীহ বেনু মিয়ার ছেলে মিছবাউল (২৬) হকের কথা কাটাকাটি হয়। রাতে তারাবিহ’র নামাজ থেকে মিছবাউলকে ধরে নিয়ে যায় মেম্বারের লোকজন। মসজিদের পাশে ব্রিজের নিচে নিয়ে গিয়ে পায়ে গুলি করে ও চাপাতি দ্বারা কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে গিয়ে মারাত্মক আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে কেউই মেম্বারের ভয়ে কথা বলতে কিংবা থানায় অভিযোগ দিতে সাহস পাচ্ছেন না।

এ বিষয়ে বড়লেখা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সহিদুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তার পরিবর্তে দায়িত্বে থাকা এসআই অমিতাভ দাস মুঠোফোনে জানান, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। কেউ এখনও থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি।