বড়লেখা উপজেলায় যাত্রী ছাউনি নির্মাণে নিম্নমানের ইট ও রড ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার দক্ষিণভাগ বাজারস্থ সড়ক ও জনপথ বিভাগের ভূমিতে এই যাত্রী ছাউনি নির্মাণ কাজ হচ্ছে।

এই ঘটনায় এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের সত্যতা পেয়ে সোমবার ইউএনও যাত্রী ছাউনির নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জেলা পরিষদ দক্ষিণভাগ বাজারে পুরনো যাত্রী ছাউনি ভেঙে নতুন যাত্রী ছাউনি নির্মাণের জন্য ২ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রদান করে। যাত্রী ছাউনি সংলগ্ন পশ্চিম দিকের কয়েকটি গ্রামের জনসাধারনের চলাচলের পাকা রাস্তা রয়েছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সেলিম উদ্দিনের প্রতিনিধি রাস্তার পর্যাপ্ত জায়গা না রেখে ও প্রায় ১৮ বছরের পুরনো যাত্রী ছাউনি ভেঙে নিম্নমানের ইট ও জংধরা রড ব্যবহার করে নির্মাণ কাজ শুরু করেন। স্থানীয়দের বাধা-নিষেধ অগ্রাহ্য করে নির্মাণ কাজে অনিয়ম চালিয়ে যাওয়ায় রোববার ভুক্তভোগীরা ইউএনও বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেন।

সোমবার সকালে ইউএনও সরেজমিনে পরিদর্শন করে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের সত্যতা পেয়ে ঠিকাদারের প্রতিনিধিকে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন, জেলা পরিষদ সদস্য আজিম উদ্দিন, বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, অভিযোগকারী আওয়ামী লীগ নেতা জালাল উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম আল ইমরান বলেন, অভিযোগ পেয়ে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও অবস্থানগত সমস্যার কারণে তিনি কাজ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। যাত্রী ছাউনির নির্মাণ কাজের সমস্ত মালামাল জেলা পরিষদের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীর অনুমোদন ব্যতিত ও অবস্থান সঠিক না হওয়া পর্যন্ত নির্মাণ বন্ধ রাখতে বলেছেন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন: আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু