বড়লেখার চান্দগ্রাম থেকে চুরি হওয়া মোটর সাইকেল বড়লেখা থানা পুলিশ র‌্যাবের সহযোগিতায় সিলেট মহানগরী থেকে উদ্ধার করেছে। সেই সাথে আটক হয়েছে আন্ত:জেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৩ সদস্য। গত শুক্রবার গভীর রাতে ঘটনা ঘটে। বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সর্দার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বড়লেখার চান্দগ্রামস্থ বাড়ীর বারান্দা থেকে রাতে দৈনিক সিলেটের ডাক এর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদের ছোট ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুনের (সিলেট মেট্রো-হ-১১-৪০৩২) মোটর সাইকেল চুরি হয়। ওয়াহিদুর রহমান ঘটনাটি থানার ওসিকে জানান। এছাড়া তার ছোট ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন বড়লেখা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর মোটর সাইকেল উদ্ধারে পুলিশ তৎপর হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে পুলিশ বিষয়টি র‌্যাবকেও অবহিত করে।

এদিকে, র‌্যাব-৯ এর সিপিএসসি ইসলামপুর কোম্পানির একটি অভিযানিক দল শনিবার বিকেল সোয়া ৪ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর আখালিয়া নেহারীপাড়ায় অভিযান চালায়। এসময় বড়লেখা থেকে চুরি হওয়া মোটর সাইকেলসহ আটক হয় আন্ত:জেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৩ সদস্য।

আটককৃতরা হচ্ছে বিশ্বনাথের জানাইয়া গ্রামের মৃত খোরশেদ মিয়ার পুত্র দুলাল (৩৪), মৌলভীবাজার সদরের সাধুহাটির আলম উল্লার পুত্র সোহেল (৩৩) এবং ওসমানীনগরের মনতৈলের ময়না মিয়ার পুত্র কয়েছ মিয়া (৩০)। চুরি হওয়া মোটর সাইকেলসহ আটককৃতদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ অভিযান পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিউল আলম। র‌্যাব-৯ এর মিডিয়া অফিসার এএসপি ওবাইন এ তথ্য জানিয়েছেন।

চান্দগ্রাম এলাকাসী সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি মোটর সাইকেল চুরি বৃদ্ধি পাওয়ায় লোকজন আতংকিত হয়ে পড়েছেন। ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীরা থানায় একাধিক মামলা ও জিডি করেছেন। স্থানীয় লোকজন এ ব্যপারে পুলিশের জোরালো হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

যোগাযোগ করা হলে বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সর্দার জানান, আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মোটর সাইকেল চোর চক্রের বাকী সদস্যদের গ্রেফতার অভিযান পরিচালনা করা হবে বলেও উল্লেখ করেন ওসি। এ প্রসঙ্গে তিনি আরো জানান, আটক সোহেলের বিরুদ্ধে চুরি রাহাজানীসহ নানা অভিযোগে বিভিন্ন থানায় ১৩টি এবং দুলালের বিরুদ্ধে ২টি মামলা রয়েছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে টিসিবি’র পণ্যে আগ্রহ নেই, অভিযোগ আছে