বড়লেখা উপজেলায় শনিবার (৩১ আগস্ট) এক অজ্ঞাত পরিচয়ের নারীসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

তাঁরা হলেন-বড়লেখা উপজেলার দাসেরবাজার ইউনিয়নের চানপুর গ্রামের মৃত রমনি দাসের ছেলে কৃষক রনজিত দাস (৫০) ও তালিমপুর ইউনিয়নের সরুয়ামাঝি গ্রামের মৃত নূর উদ্দিনের ছেলে সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকর (৪৫)। অন্যদিকে অজ্ঞাত নারীর লাশ দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের চুকারপুঞ্জি এলাকার ছড়া থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ তিনজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তালিমপুর ইউনিয়নের সরুয়ামাঝি গ্রামের সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকরের লাশ ঘরের পাশের আম গাছের ডালের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। আলী আছকর আগের রাতে ১১টায় খাবার খেয়ে পরিবারের সবার সাথে ঘুমিয়ে ছিলেন। খবর পেয়ে শনিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে শনিবার বেলা সাড়ে বারোটার দিকে উপজেলার দাসেরবাজার ইউনিয়নের চানপুর এলাকায় নদীর পাড়ের একটি বরুণ গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় কৃষক রনজিত দাসের লাশ উদ্ধার করা হয়। আগের রাত দুইটার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে তিনি আর ফেরেননি। শনিবার সকালে তাকে খোঁজতে গিয়ে নদীর পাড়ে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ দেখতে পায় তার পরিবার।

অন্যদিকে শনিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের চুকারপুঞ্জি এলাকার মাধবছড়া খালের পানি থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানিয়েছে, ওই নারী মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।

বড়লেখা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জসীম শনিবার অজ্ঞাতনামা নারীসহ তিজনের  লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘তিনটি পৃথক অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তিনজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’



“বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রথম ২৪ ঘন্টার টেলিভিশন ABtv’ র অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল, সাবস্ক্রাইব করে দেখতে থাকুন প্রতিদিনকার বিয়ানীবাজারের ঘটনাপ্রবাহ”নিচের লিঙ্কটি ক্লিকের মাধ্যমে সহজেই সাবস্ক্রাইব করতে পারবেন ABtv
Subscribe: http://bit.ly/2OOvJad