বিয়ানীবাজার উপজেলার তিলপাড়া ইউনিয়নের দাসউরা গ্রামের সন্তান, সিলেট নগরীর ব্যবসায়ী, শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক আবদুল মুক্তাদির আর নেই। সোমবার সকালে তিনি সিলেটের আল হারামাইন হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই পুত্র, কন্যা, পুত্রবধূ ও নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন ডা. শিব্বির আহমদ সোহেল। তিনি জানান, তিনি লিভারসিরোসিসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসার জন্য ভারত গিয়েছিলেন। গত সপ্তাহে দেশে ফিরেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আজ সকালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার জানাজার নামাজ সোমবার দুপুর আড়াইটার সময় দাসউরা আলিম মাদ্রাসা মাঠ এবং বাদ এশা শাহজালাল উপশহর বি ব্লক জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।

ডা. শিব্বির আহমদ সোহেল আরও জানান, ভারতে তার সফরসঙ্গি স্ত্রী ও ছেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সেখানেই কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের আশু সুস্থতা কামনা করে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন তিনি।

আব্দুল মুক্তাদিরের বাড়ি বিয়ানীবাজারে হলেও তিনি বর্তমানে সিলেট নগরীর শাহজালাল উপশহর এলাকার বি ব্লকের ২২ নং রোডে স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। তিনি শাহজালাল উপশহর কল্যাণ পরিষদের সাবেক সভাপতি।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

ইউপি নির্বাচন নিয়ে 'এবি টিভি'র বিশেষ আয়োজন ‘ভোটের হাওয়া’।। ৫ম পর্বে মাথিউরা ইউনিয়ন