যুক্তরাজ্য ভিত্তিক শিক্ষা ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থা ‘ভিশন’ এর উদ্যোগে বিয়ানীবাজারের বৈরাগীবাজার উচ্চ বিদ্যালয় ও বৈরাগীবাজার সিনিয়র আলীম মাদ্রাসার মেধাবী ও গরীব শিক্ষার্থীদের ভর্তির কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে শুরু হওয়া ভর্তি কার্যক্রম ফেব্রুয়ারি মাসে শেষ হয়।

গত ২০২০ সনে পাশ করা বৈরাগীবাজার এলাকার ৬০জন গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের ভর্তি ও ভর্তির সহায়তা প্রদান করেছে। করোনাকালীন সময় হওয়ায় স্কুল, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় ভর্তি কার্যক্রম কিছুটা ধীরগতিতে হয়। এ বছর নিয়ে ভিশন তৃতীয় বারের মত শিক্ষার্থীদের ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করে।

বৈরাগীবাজার সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাও: মাহবুব আহমদ বলেন, সামান্য অনুদান হলেও গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীদের কাছে অনেক। এ ভর্তির অনুদান না পেলে অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়তো। মাদ্রাসার দরিদ্র তহবিল এবং এবার ভিশনের কিছু ভর্তির অনুদানে ছাত্র-ছাত্রীদের ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। আমার বিশ্বাস আগামীতে দেশী ও প্রবাসী এবং বিভিন্ন সংগঠন গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীর ভর্তির জন্য এগিয়ে আসবেন। আমি ভিশনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই এবং ভিশনের প্রত্যেক সদস্যদের দীর্ঘায়ু কামনা করি।

ভিশনের ভর্তির কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়ে বৈরাগীবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল হক বলেন, ভিশনের মাধ্যমে আমার স্কুলের গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা ভর্তির সুযোগ পেয়েছে সে জন্য লন্ডনে থাকা সকল ভিশনের সদস্যদের আন্তরিক ধন্যবাদ। আমার স্কুলের দরিদ্র তহবিলসহ ভিশনের মাধ্যমে যারা ভর্তি হয়েছেন তা যথেষ্ট নয়! আরো অনেক শিক্ষার্থী আছে অর্থের অভাবে ভর্তি হতে পারছেনা তারা বেতন দিতে পারছেনা, আমি আহবান জানাই এলাকার বৃত্তবান ও প্রবাসীরা এ খাতে আরো আর্থিক সহায়তা দেওয়া জন্য।

সংস্থার দায়িত্বশীলরা বলেন, ‘ভিশন’ যুক্তরাজ্য ভিত্তিক শিক্ষা ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থা এ স্লোগানকে নিয়ে মানুষের মৌলিক চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে ভিশনের যাত্রা। ভিশন তৃতীয় বর্ষে প্রদার্পন করলো। গুটিকয়েক সদস্যের মহৎ ও আলোর দিকে এগিয়ে যাবার প্রত্যাশা। আমাদের মাধ্যমে যদি সমাজের অসহায় ও গরীব-দুঃখী মানুষের সামান্যতম উপকার হয়, তাতে আমরা তৃপ্ত হবো। সমাজের সকল বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে ভিশনের অনুপ্রেরণা সবসময় থাকবে। আগামীতে যাতে আমারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামনে এগিয়ে যেতে পারি, সেই জন্য দোয়া করবেন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে শসার হাট!