সিলেট-বিয়ানীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়কের চারখাই বাজার অংশের সড়কের বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। সড়কের ওই অংশের পলেস্তারা উঠে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে গর্ত-খানাখন্দের। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। দ্রুত সময়ের মধ্যে বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করে জলাবদ্ধতা লাঘব করতে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা দাবি জানিয়েছেন।

ভুক্তভোগীরা জানান, ১শত ৭২ কোটি টাকা খরচ করে সিলেট-বিয়ানীবাজার-জকিগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের সংস্কার কাজ করা হয়। এ সংস্কারের সময় গত বছর চারখাই বাজার অংশের সংস্কার করে সওজ। কিন্তু সংষ্কার কাজ শেষ হলেও বাজারের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নতি হয়নি। ফলে বৃষ্টির পানি জমে বাজারে নাহিদ চত্বর এলাকা পশ্চিম দিকের কয়েকশত ফুট এলাকায় গর্ত ও খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া এসব গর্তের ময়লা ও কাদা পানির কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা। একই অবস্থা চারখাই বাজার সংলগ্ন এলাকায়ও। স্থানীয়রা দ্রুত সড়কের সংস্কার কাজ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করার দাবি জানিয়েছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা সৈয়দ খালেদ আহমদ জানান, সড়কের এ অংশটিতে অনেকদিন ধরে বৃষ্টির পানি জমে থাকে। সড়ক পেরিয়ে বাজারে যেতে হলে ময়লা পানি ঘেঁটে যেতে হচ্ছে। অথচ সড়ক সংস্কার ও সড়কের পাশের ড্রেনেজ ব্যবস্থা ঠিক থাকলে এ দুর্ভোগ পোহাতে হতো না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, সড়কের পাশের দোকানীরা ড্রেনের জন্য নির্ধারিত স্থানে নিজেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করায় ও মাটি দিয়ে উচু করায় বৃষ্টির পানি সরে যাবার পথ বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে দীর্ঘদিনের বৃষ্টির পানি জমে দুর্ভোগ সৃষ্টির পাশাপাশি দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কারো এ বিষয়টি নজরে পড়ছে না।

এ বিষয়ে সিলেট সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলীর কর্পোরেট মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।