বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মোহাম্মদ এনামুল হক তালুকদারের অকাল মৃত্যুতে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় কলেজ মিলনায়তনে শিক্ষক পরিষদের আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. তারিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ।

কলেজের সহযোগী অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার মৃধার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সহযোগী অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমান, মো. শহীদুল আলম, ড. আবু ইউসুফ মো. শেরউজ্জামান, মো. মনছুর আলমগীর, মো. করিম ইকবাল তাজওলী, সহকারি অধ্যাপক নুরুল হক চৌধুরী, মো. আব্দুর রহিম, ফজলুল রব, মো. তৌহিদুল ইসলাম, দিবাকর তালুকদার, প্রভাষক সাদেকুর রহমান, নিকসন দাস, এমদাদুল হক, ঊর্মি লাবনী চক্রবর্তী, রাজেশ কুমার সাহা রায়, মো. আরবাব হোসেন খান, জুবায়ের আহমদ, ফয়জুল হক, মো. হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

সভায় বক্তারা এনামুল হক তালুকদারের জীবনকর্মের ওপর স্মৃতিচারণ ও আলোকপাত করে তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করে বলেন, মরহুম এনামুল হক তালুকদার সাহেব আমাদের একজন বিশস্ত সহকর্মী ছিলেন। শিক্ষাসেবায় তিনি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে নিয়মিত পাঠদানকালে ছিলেন তিনি সক্রিয়। আবার শিক্ষকতার বাইরে গিয়েও তিনি হয়ে উঠেছিলেন একজন যোগ্য অভিভাবক। নৈতিক চরিত্রের অধিকারী মানুষটির জীবনাচার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের আদর্শ হতে পারে এবং শিক্ষাক্ষেত্রে তাঁর অবদান কখনোই ভুলার মতো নয়।

সদ্য প্রয়াত এই শিক্ষকের জীবনী পাঠ করেন প্রভাষক মো. জহির উদ্দিন এবং স্মরণিকা পাঠ করেন প্রভাষক শোহা হাওয়া চৌধুরী।

সভায় স্মৃতিচারণ করেন কলেজের অফিস সহকারি মো. মোফাক্কারুর রহমান, শংকর দাস, জাহিদুর রহমান এবং শেষে দোয়া পরিচালনা করেন কলেজ মসজিদের ইমাম হাফেজ মাও. মোশাহিদ আহমদ।

এর আগে বাংলা বিভাগের সংগঠন অগ্নিবীণা বাংলা সংঘের পক্ষ থেকে এক দোয়ার আয়োজন করা হয়। বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে দোয়া পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আকমল হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি আহমদ রেজা চৌধুরী ও বাদল খান।

প্রসঙ্গত, সহকারি অধ্যাপক মো. এনামুল হক তালুকদার গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮.২০ মিনিটের সময় করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনি সিলেটস্থ মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫০ বছর। জানাযার নামাজ শেষে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের নিজ গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরেই শুভেচ্ছায় সিক্ত মুড়িয়ার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছাব্বির উদ্দিন