বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণির ‘ওরিয়েন্টেশন ক্লাস’ (পরিচিতমুলক) পাঠদানে প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তা জারি করা হয়েছে। একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ব্যতিত কলেজের অপর শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। এ পদক্ষেপে কলেজের পরিবেশ সুষ্ঠ রয়েছে বলে দাবি কলেজ প্রশাসন ও দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকর্তার।

সকাল ৮ টা থেকে শিক্ষকরা কলেজে চলে আসেন। এ সময় বিয়ানীবাজার থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী নেতৃত্বে একদল পুলিশ বাহিনী কলেজে অবস্থান নিয়েছে। পরে সহকারি পুলিশ সুপার (জকিগঞ্জ সার্কেল) পুলিশ বহরে এসে যোগদেন। সকাল ৯ টা থেকে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা কলেজ গেইটে এসে পৌছালে তাদেরকে শিক্ষক ও প্রশাসন কলেজে প্রবেশ করাচ্ছেন। কিন্তু কোন অভিবাবাক প্রবেশ করতে দিচ্ছেন না। এছাড়া বেলা বাড়ার সাথে সাথে কলেজের অন্য বর্ষের শিক্ষার্থীরা প্রবেশ করতে চাইলে তাদে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করদে দেয়া হয়নি। এর ফলে কলেজ প্রধান ফটকে শিক্ষার্থীদের জটলা দেখা দেয়।

সকাল ১০ টায় একাদশ শ্রেণির পরিচিতিমুলক পাঠদান শুরু হয়েছে। তিনটি ভাগে পরিচিতিমুলক ক্লাস আয়োজন করেছেন কর্তৃপক্ষ। মানবিকের দুইটি ভাগে ৩শত করে ৬শত শিক্ষার্থী এবং বিজ্ঞান ও ব্যবসা শিক্ষার শিক্ষার্থীদের অপর ভাগে পরিচিতিমুলক ক্লাস নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, শিক্ষার্থীদের কঠোর নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ সক্রিয় রয়েছে। কোন অবস্থায় কলেজের সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট হবে না। প্রকৃত শিক্ষার্থীদের কলেজে প্রবশে করানো হচ্ছে। এক্ষেত্রে পুলিশকে কলেজের বিএনসি সহযোগিতা করছে।

এ ব্যাপারে কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যাপক দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ বলেন, কলেজ প্রশাসনে নিরাপত্তা জারি করা রয়েছে। বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ সহায়তা করতেছে। শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের নিরাপদে প্রবেশ করাচ্ছেন।