শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ পঞ্চখন্ড হরগোবিন্দ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় বিয়ানীবাজার এলাকায় জ্ঞানের আলো বিস্তরণে প্রধানতম ভূমিকা পালনকারী প্রতিষ্ঠান। অত্র প্রতিষ্ঠান ১৯১৭ খ্রীস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয়ে ২০১৭ খ্রীস্টাব্দে শতবর্ষের পথ অতিক্রম করে। শতবর্ষ অতিক্রমের প্রাক্কালে অত্র এলাকায় অবস্থানকারী সাবেক ছাত্রদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হয় এবং বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরা এক সভায় মিলিত হয়ে বিদ্যালয়ের শতবর্ষ অতিক্রম উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়।

কিন্তু পরবর্তীতে দেশের রাজনৈতিক অবস্থাসহ পৌর ও জাতীয় নির্বাচনের প্রেক্ষিতে এ অনুষ্ঠান বারবার পেছাতে হয়। সর্বশেষ গত ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীস্টাব্দে শতবর্ষ উদযাপন কমিটি কতৃক একটি সংবাদ সম্মেলন করে অনুষ্ঠানের সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করা হয় ১৯ ও ২০ জানুয়ারি ২০২১ খ্রীস্টাব্দে। এ উপলক্ষে বিভিন্ন উপকমিটি তাদের কার্যক্রমও জোরেশোরে চালিয়ে যেতে থাকে। কিন্তু দূর্ভাগ্যজনকভাবে মার্চ ২০২০ খ্রীস্টাব্দ হতে বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় এ কার্যক্রমের স্বাভাবিকত্ত্বে ছেদ পড়ে। এমনকি অনুষ্ঠানের হোমওয়ার্কও অনেকটা অসম্ভব হয়ে পড়ে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারও প্রতিটি বিদ্যানিকেতন দিনের পর দিন বন্ধ রাখতে বাধ্য হওয়ার পাশাপাশি ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন পরীক্ষা বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছে।

এরকম পরিস্থিতিতে বিদ্যালয়ে শতবর্ষ পালন নির্ধারিত সময়ে আয়োজন অসম্ভব বিধায় শতবর্ষ উদযাপন কমিটি বিগত ২১-১২-২০২০ খ্রীস্টাব্দ তারিখের সভায় উক্ত অনুষ্ঠান আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে সরকার কতৃক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার পর এবং কোভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিকের প্রেক্ষিতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ অনুষ্ঠান আয়োজনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। উক্ত অনুষ্ঠান আয়োজনের লক্ষ্যে সব ধরনের প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম বর্তমানে চালানো হচ্ছে। বিশেষত রেজিষ্ট্রেশনসহ প্রকাশনা কার্যক্রম দ্রুত গতিতে এগিয়ে নেয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠান আয়োজনে অনাকাঙ্খিত এ বিলম্বের জন্য শতবর্ষ উদযাপন কমিটি দূঃখ প্রকাশ করছে। পাশাপাশি এ অনুষ্ঠান অনুকূল সময়ে সফল ও সার্থকভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে চলমান কার্যক্রমে সবাইকে অংশগ্রহণসহ সহযোগিতার জন্য সনির্বন্ধ অনুরোধ জানিয়েছেন শতবর্ষ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল হাছিব জীবন।