বিয়ানীবাজার উপজেলার উত্তর আকাখাজানায় সাড়ে তিন বছরের শিশু সায়েল আহমদ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত আসামির সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। সোমবার (২৯ জুন) দুপুরে গ্রামের প্রধান সড়কে এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ জানিয়ে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকার জনপ্রতিনিধি, তরুণ, যুবক ও মুরব্বিরা অংশ নেন।

এসময় বক্তারা বলেন, শিশু হত্যার ঘটনায় দেশে ও প্রবাসী এলাকার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। আমরা প্রকৃত আসামীদের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে শাস্তি দাবী করছি। একই সাথে ব্যক্তিগত কিংবা পারিবারিক বিরোধের কারণে কোন নিরপরাধ মানুষ জাতে শাস্তি না পায় সে বিষয়টির ওপর দৃষ্টি রাখতে তাঁরা প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, উত্তর আকাখাজানা গ্রামের বিশিষ্ট মুরব্বি হাজী মাহমদ আলী, তুতিউর রহমান মেম্বার, আব্দুল মানিক মেম্বার, নিজাম উদ্দিন, তেরা উদ্দিন, আব্দুল মালিক, আব্দুল আজিম, বদর উদ্দিন, জিয়া উদ্দিন, উত্তর আকাখাজানা গ্রামের যুবক সাংবাদিক মাহমুদ হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাইদুল ইসলাম, ইভান উদ্দিন, ফরিদ উদ্দিন, উত্তর আকাখাজানা প্রবাহ্ সংঘে সভাপতি শিপলু হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন সাকিল, সহ-সভাপতি আফজল হোসেন, সহ-সভাপতি রেদওয়ান আহমদ, অর্থ-সম্পাদক রুমেদ, সহ অর্থ-সম্পাদক সুফিয়ান আহমদ, মোঃ আলী, রেজাউল হক, নাসির উদ্দিন, তানভীর আহমেদ, কাজল আহমদ, শিপু ইসলাম, রেদওয়ান আহমদ, আলতাফ হোসেন, সৈয়দ আহমদ, ফাহিম আহমদ, রব্বানি হুসেন, হানিফ, সালমান হুসেন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৮ জুন সকালে শ্বাসরুদ্ধ করে শিশু সায়েলকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার আপন চাচীকে ঐদিন গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে ঐ মহিলার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ঘটনাস্থল থেকে নিকটাত্মীয় ইব্রাহিমকে আটক করা হয়। এ মামলার এজাহারভুক্ত আসামী আত্মস্বীকৃত খুনি মহিলার স্বামী রুনু মিয়া পলাতক রয়েছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে সোনাই নদীর ভাঙনে সড়ক বিলীন, ঝুঁকিতে বসতবাড়ি মসজিদ- মাদ্রাসা