বিয়ানীবাজারে পৃথক অভিযান চালিয়ে বিদেশী অফিসার্স চয়েজ মদ, গাঁজা ও ইয়াবাসহ দুইজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। গ্রেপ্তাকৃতরা হলো- মোল্লাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম নিদনপুর গ্রামের মৃত হারিছ আলীর ছেলে শফিকুর রহমান এবং উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের কাচাঁটুল গ্রামের চান্দ আলীর ছেলে আব্দুল কুদ্দুছ ওরফে জেমস কুদ্দুছ।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত্রে উপজেলার মোল্লাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম নিদনপুর এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে থানার এসআই মোঃ জাফর আলমের নেতৃত্বে পুলিশের একটি ১০ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদ ও ১০০ গ্রাম গাঁজাসহ শফিকুর রহমান নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। অপরদিকে পৃথক অভিযানে বিয়ানীবাজার এসআই মো: শাহ আলম ভূইয়ার নেতৃত্বে লাউতা ইউনিয়নের কাঁচাটুল গ্রামে অভিযান চালিয়ে ১০ পিস ইয়াবা সহ আব্দুল কুদ্দুছ ওরফে জেমস কুদ্দুছকে আটক করে।

গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায় বলেন, সিলেটের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম স্যারের দিক নির্দেশনায় সিলেট জেলাকে মাদকমুক্ত ও অপরাধমুক্ত করতে কাজ করছে পুলিশ। এরই অংশ হিসেবে বিয়ানীবাজার উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ১০ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদ, ১০০ গ্রাম গাঁজা ও ১০ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে  আটক করা হয়। ধৃত আসামিদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে মামলা দায়ের করে জেলহাজতে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে। তিনি বলেন, থানা এলাকায় অপরাধ প্রবণতা যাহাতে বৃদ্ধি না পায় সেজন্য পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

ওসি হিল্লোল রায় আরো বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক প্রতিরোধ, জুয়া, বাল্যবিবাহ, নারী ও শিশু নির্যাতন সকল ক্ষেত্রে পুলিশের যে ভূমি তার চেয়ে জনগণের ভূমিকা কোনো অংশে কম নয়। যে কোনো অপরাধ নির্মূল করতে হলে পুলিশ ও জনতা মিলে কাজ করতে হবে। তাহলে সমাজে আর কোনো অপরাধ থাকবে না। মাদক ও অপরাধমূক্ত বিয়ানীবাজার উপজেলা গড়তে সর্বস্তরের জনসাধারণকে বাংলাদেশ পুলিশকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-