‘মেতে উঠি আনন্দে, ফিরে যাই শৈশবে’- এই মূলমন্ত্র নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের বন্ধু-২০০০ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের এক মিলনমেলা। শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটায় পৌরশহরের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে দীর্ঘ ২০ বছর পর এক আয়োজনের মাধ্যমে ব্যাচের অধিকাংশ বন্ধুরা একত্রিত হন। এই অনুষ্ঠানে ব্যাচের বন্ধুদের মধ্যে উপহারসামগ্রী আদান-প্রদান করা হয়। দীর্ঘদিন যোগাযোগ না থাকা বন্ধুরা একে অপরকে পেয়ে অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। খোঁজ নেন পরিবার-পরিজনের, ব্যক্ত করেন নিজেদের অনুভূতি।

ব্যস্ত জীবনে বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হওয়াটা আজকাল তেমন হয়েই ওঠে না। ঠিক সেই কথা মাথায় রেখে বন্ধুদের সঙ্গে যাতে একে অপরের দেখা হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপে সে সুযোগ সৃষ্টি করে দেন বন্ধু-২০০০ ব্যাচের অন্যতম ‍সদস্য ব্যবসায়ী সাব্বির আহমদ বকসী। গত ২১ মার্চ তিনি হোয়াটসঅ্যাপে একটি গ্রুপ খোলে সকল বন্ধুকে একত্রিত করেন। এরপরই বন্ধু-২০০০ ব্যাচের বন্ধুরা মিলে একজন অসুস্থ বন্ধুকে চিকিৎসা সহায়তা এবং প্রয়াত আরেক বন্ধুর পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের মধ্য দিয়ে তাদের পাশে দাড়ান।

ব্যাচের সদস্য আব্দুল করিমের পরিচালনায় মিলনমেলা ও উপহারসামগ্রী প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ও ব্যাচের অন্যতম সদস্য জামিল আহমদ। এসময় তারা বন্ধুদের মধ্যকার এমন বন্ধন আগামীর দিনগুলোতেও অটুট রাখার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

মিলনমেলায় উপস্থিত ছিলেন বন্ধু-২০০০ ব্যাচের অন্যতম সদস্য সাব্বির আহমদ বকসী, আব্দুল্লাহ আল রাকিব, সাব্বির আহমদ, ছফর উদ্দিন, জামাল আহমদ, জগলুল হোসেন সুমন, নজরুল হোসেন খোকন, খালিদ আহমদ চৌধুরী, রফিক উদ্দিন, রফিক উদ্দিন বাছন, রায়হান আহমদ, জুনেদ আহমদ, হোসেন আহমদ, আব্দুল আহাদ, সুরাইয়া শাহীন, সাইফ উদ্দিন, নজরুল হোসেন বাবু, আব্দুল কুদ্দুস, জয় ইসলাম, মাছুম আহমদ, ইমরুল কায়েস, জহির আহমদ, তুফায়েল আহমদ স্বপন, এস চৌধুরী তানু প্রমুখ।

এবিটিভির প্রতিবেদন-