বিয়ানীবাজার থানা পুলিশের অভিযানে জুয়া আইনে ১১ জন এবং পরোয়ানাভুক্ত ৪ জন আসামীসহ সর্বমোট ১৫জন আসামী গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে পৃথক মামলার এসব আসামীদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

থানা পুলিশ জানায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াহিয়া আল মামুন জকিগঞ্জ সার্কেল এর তত্ত্বাবধানে এবং বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ দেবদুলাল ধর এর নির্দেশে শুক্রবার দিবাগত রাতে একটি আভিযানিক দল উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রাম এলাকার একটি বসতবাড়িতে অভিযান পরিচালনা চালিয়ে জুয়া খেলার সরঞ্জামাদি ও নগদ ১৫ হাজার ৭’শ টাকাসহ ১১জন জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃত জুয়াড়িরা হচ্ছে-উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রাম এলাকার মৃত শাহাব উদ্দিনের ছেলে লিটন আহমেদ ও একই এলাকার মৃত হাজী ইয়াছিন আলীর ছেলে আব্দুর রব, পৌরসভার নিদনপুর এলাকার মৃত আব্দুর রউফের ছেলে আবু বক্কর ও একই এলাকার মৃত ছিকান্দর মালীর ছেলে আব্দুল মনাফ, মোল্লাপুর গ্রামের মৃত আজির উদ্দিনের ছেলে লিটন আহমদ, পৌরসভার নয়াগ্রাম এলাকার মৃত মইন উদ্দিনের ছেলে জামিল আহমদ, তিলপাড়া ইউনিয়নের উলুউরি গ্রামের মৃত মনজির মিয়ার ছেলে ফয়েজ আহমদ, লাউতা ইউনিয়নের জলঢুপ পাতিটিকর এলাকার মৃত তফজ্জুল আলীর ছেলে সাহাব উদ্দিন, দুবাগ ইউনিয়নের সাদিমাপুর এলাকার মৃত আব্দুল মালিকের ছেলে লিটন আহমেদ, পৌরসভার মোল্লাপুর গ্রামের মৃত সাজ্জাদ আলীর ছেলে মোঃ শামসুল ইসলাম, তিলপাড়া ইউনিয়নের চান্দলা গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে আলী হোসেন।

এদিকে, শুক্রবার দিবাগত রাতে থানা পুলিশের পৃথক আরেক অভিযানে তিলপাড়া ও মোল্লাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পরোয়ানাভুক্ত চারজন আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে।

তারা হচ্ছে- মোল্লাপুর ইউনিয়নের মাটিকাটা গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে আফজাল কবির মিঠু, তিলপাড়া ইউনিয়নের পীরেরচক (নন্দীশ্বর) গ্রামের রফিক উদ্দিন, তার স্ত্রী আম্বিয়া বেগম এবং তাদের ছেলে হাবিবুর রহমান রাহি।

বিয়ানীবাজার থানা পুলিশের মিডিয়া অফিসার এসআই শিমুল রায় স্বাক্ষরিক এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদেরকে বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।