বিয়ানীবাজারে একটি ডিআই পিকআপ ট্রাকের কেবিনে করে গাঁজা পরিবহণকালে থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে দুইজন মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৫টার দিকে উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের কাকুরা দিঘীরপার এলাকা থেকে ছয় কেজি গাঁজা ও একটি ডিআই ট্রাকসহ তাদেরকে আটক করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- হবিগঞ্জের সদর থানার উমেদনগর গ্রামের অলি মিয়ার ছেলে মোস্তাকিন (২৫) ও সিলেটের কানাইঘাট থানার জুলাই নয়াঘাট এলাকার মৃত তবারক আলীর ছেলে ইসমাইল উদ্দিন (৪৮)। এ সময় কিশোরগঞ্জের মিঠামইন থানার ভুরভুরি গ্রামের গফুর চৌধুরীর ছেলে আকাশ চৌধুরী (৩৫) নামের অপর এক মাদক কারবারি পালিয়ে যায়।

থানা পুলিশ সূত্র জানায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জকিগঞ্জ সার্কেল ইয়াহিয়া আল মামুন এর তত্ত্বাবধানে এবং বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ দেবদুলাল ধর এর নির্দেশনায় এসআই মোফাখখারুল ইসলাম নেতৃত্বাধীন একদল পুলিশ শনিবার সন্ধ্যা ৫টার দিকে বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের কাকুরা দিঘীরপার এলাকার চেকপোস্ট ডিউটি চলাকালে একটি ডিআই পিকআপ গাড়ি চেকপোস্ট ব্যারিকেড বেপরোয়াভাবে অতিক্রম করার চেষ্টা করলে গাড়িটিকে আটকানো হয়। এসময় আটককৃত গাড়িটি থেকে পুলিশ দুইজন কে আটক করলেও একজন লোক দৌড়ে পালিয়ে যায়। আটককৃতদের তল্লাশিকালে তাদের ব্যবহৃত পরিবহন ডিআই পিকআপ গাড়ির কেবিন থেকে ৬ কেজি গাঁজা যার মূল্য ৯০,০০০/-(নব্বই হাজার) টাকা এবং গাঁজা পরিবহনে ব্যবহৃত ডিআই পিকআপ গাড়ি, (ঢাকা মেট্রাে- ন-২১০২৩১) যার মূল্য অনুমান ১৫,০০,০০০/-(পনের লক্ষ) টাকা জব্দ করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিয়ানীবাজার থানার ফোকাল মিডিয়া অফিসার হর্ষাবর্ধন জানান, সিলেট জেলার অপরাধ দমন, আসামী গ্রেফতার ও জেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় জেলা পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাছাড়া জেলার সংঘটিত সংঘবদ্ধ অপরাধ, খুন, ধর্ষণ, পরোয়ানাভূক্ত সাজাপ্রাপ্ত ও চাঞ্চল্যকর মামলার আসামী গ্রেফতারে জেলা পুলিশ সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে আসছে। তিনি জানান, আটককৃত ও পলাতক আসামির বিষয়ে আইনী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।