বিয়ানীবাজার পৌরশহরের দক্ষিণ বাজারে পরিবহণ শ্রমিকদের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। বুধবার সকালে অটোরিক্সার চালকরা ব্যাটারি চালিত টমটম চালকদের মারধর করলে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে উত্তেজিত শ্রমিকদের নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে। ফলে শহরের ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে।

সকালে টমটম চালকরা সারা বিয়ানীবাজারে চলাচলের অনুমোদনের জন্য দক্ষিণ বাজারে অবরোধ করার চেষ্টা করে। এ সময় অটোরিক্সা চালকরা অবরোধে বাধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে টমটম চালকরা পিছু হটে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষের ৮জন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, টমটম চালকদের পৌরসভার মধ্যে চালানোর শর্তে পৌর কর্তৃপক্ষ এক বছরের লাইসেন্স প্রদান করে। পৌরসভার বাইরে থেকে শহরে যাত্রি নিয়ে টমটম আসলে পৌরসভা থেকে কোন যাত্রি পরিবহন করতে পারবে না- এরকম বেশ কিছু শর্ত সাপেক্ষে টমটম চালকদের শহরে গাড়ি চালানোর অনুমোদন দেয় পৌরসভা। তবে হঠাৎ করে পৌর কর্তৃপক্ষের শর্তের বাইরে গিয়ে সমস্ত বিয়ানীবাজারে সমানভাবে টমটম চালানোর দাবিতে অবরোধে নামে টমটম চালকরা। বুধবার সকালে দক্ষিণবাজারে অবরোধ করার সময় অটোরিক্সা চালকরা বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষে বাধে।

দুপুরে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উভয়পক্ষকে নিয়ে উদ্ভুত পরিস্থিতি সমাধানের জন্য সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সংঘর্ষ ঘটনার বিষয়ে সালিশ বৈঠকের আগে কোন পক্ষই সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার ওসি হিল্লোল রায় বলেন, খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে পৌছে দুইপক্ষকে শান্ত করেছি। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তিনি বলেন, বুধবার (আজ) দুপুর ২টার দিকে দুই পক্ষকে নিয়ে আমরা বসে আলোচনা সাপেক্ষে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে পরিবহন শ্রমিকদের দুই পক্ষের সংঘর্ষ