দেশের সার্বিক অগ্রযাত্রায় নারী উদ্যোক্তাদের অবদান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে নানা কারনে সেই নারী উদ্যোক্তারা থেকে যান নেপথ্যের পেছনের গল্পে। আর তাই প্রান্তিক পর্যায়ের ক্ষুদ্র ও মাঝারী নারী উদ্যোক্তাদের সার্বিক উন্নয়ন, তাদের উৎপাদিত ও তৈরি পন্যের বিকাশ ঘটাতে বিয়ানীবাজারে যাত্রা শুরু করেছে তাঁত, হস্ত, বস্ত্র ও কুটির শিল্প উদ্যোক্তা মেলা। শুক্রবার বিকালে পৌরশহরের সুপাতলাস্থ এমএজি ওসমানী স্টেডিয়ামে ফিতা কেটে দুই মাসব্যাপী আয়োজিত এই মেলার উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব।

বিয়ানীবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সাজুর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল কাশেম পল্লব মেলার সর্বাঙ্গীন সফলতা কামনা করেন বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ের ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের জীবনমাণ পরিবর্তনের পাশাপাশি উদ্যোক্তা হিসেবে নারী সমাজের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্ঠান্ত হবে এই মেলা।

মেলার আয়োজক কমিটির সার্বিক ব্যবস্থাপক, বিল্পব এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারি মুজিবুর রহমান বিপ্লবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিয়ানীবাজার প্রেস ক্লাব সভাপতি সুয়াইবুর রহমান স্বপন ও সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহমদ, তথ্যআপা প্রকল্পের দেশে তৈরি পন্য বিক্রির অনলাইন প্লাটফর্ম লালসবুজ ডটকম সমিতির সভাপতি ওয়াহিদা পারভিন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিয়ানীবাজার প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি আহমেদ সাহেদ, ম্যাপ টিভির সিইও মুনজের হোসেন বাবু, প্রেসক্লাব সদস্য মহসিন আহমেদ রনি, ব্যবসায়ী বাবুল হোসেন, মাওলানা জাকারিয়া আহমদ সহ আরও অনেকে।

স্থানীয় উদ্যোক্তাদের তৈরীকৃত পণ্য বিক্রির ব্যবস্থা করতেই এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান ওয়াহিদা পারভিন।

তাঁতের ইতিহাস বাংলাদেশের শিল্প জগতে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের একটি। এই শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখার পাশাপাশি দেশীয় নারী উদ্যোক্তাদের বিকশিত করতে মেলা আয়োজনের এমন উদ্যোগ সফল করার আহবান জানিয়েছেন আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

মেলায় বাড়তি সুবিধা হিসেবে জন্ম নিবন্ধন, জাতীয় পরিচয়পত্র এবং সার্বজনীন পেনশন স্কিম বিষয়ক তিনটি আলাদা বুথের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। শুধু তাই নয়, মেলায় আগত শিশু-কিশোরসহ সববয়সী ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের রাইডের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এদিকে, উদ্বোধন অনুষ্ঠানের শেষ দিকে মেলা প্রাঙ্গন এবং মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শামীম ও বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ দেবদুলাল ধর। এসময় তারা দেশে তৈরি পণ্য উৎপাদন ও ক্রয়-বিক্রয়ে উদ্যোক্তাদের পাশাপাশি সর্বস্তরের বিয়ানীবাজারবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।