বিয়ানীবাজার নিউজ ২৪। ২৪ জানুয়ারি ২০১৭।

বিয়ানীবাজার উপজেলা আলীনগর ইউনিয়নের কাদিমল্লিক এলাকায় একটি অভিযোগের তদন্তের জের ধরে পুলিশের সাথে গ্রামবাসীর দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার উপপরিদর্শক দেবাশিষ শর্মা বাদি হয়ে থানায় এ মামলা দায়ের করেন। সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ সংঘর্ষে ৫ পুলিশসহ ১৫জন আহত হয়েছেন।

উত্তেজিত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ শটগানের পাকা গুলি বর্ষণ করে গ্রামবাসীকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় জুবের আহমদকে আটক করে।

জানা যায়, উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের জালালনগর গ্রামের মৃত হারিছ আলীর পুত্র কামরুল ইসলাম অভিযোগ করেন আলীনগর ইউনিয়নের কাদি মল্লিক এলাকায় মেরাজের খাল লীজ নিলে কাদিমল্লিক গ্রামের মৃত তৈয়ব আলীর পুত্র জুবের আহমদ (৫০) খালটি দখল নেন। এ অভিযোগের তদন্ত করতে গিয়ে চারখাই পুলিশ ফাড়ির উপ পরিদর্শক একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে জুবের আহমদ ও তার ছেলে রুবেল আহমদের হামলা শিকার হন। জুবেরের পক্ষের লোকজন পুলিশের হাত থেকে অস্ত্র ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। এ সময় হাতাহাতির ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় উপপরিদর্শক দেবাশিষ শর্মা, নায়েক পিন্টু মিয়া, কনেস্টেবল গাজী মোস্তফা, মনির হোসেন ও রিপন মিয়া আহত হন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আর পুলিশ উপস্থিত হয়ে উত্তেজিত গ্রামবাসীকে ছত্রভঙ্গ করে। এ সময় পুলিশের গুলি জুবের আহমদ, রুবেল আহমদসহ আরও ৮ আহত হন। আহতদের বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সিলেট ওসমানি মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কামরুল ইসলাম বলেন, নিয়মতান্ত্রিকভাবে মেরাজ খাল লীজ নিয়ে জুবেরকে দেখাশোনার দায়িত্ব দেই। এ সুযোগে সে খালের দখল নিয়ে মাছ শিকার শুরু করে। সে দখল না ছাড়ার হুমকি দিলে আমি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

উপপরিদর্শক দেবাশিষ শর্মা বলেন, এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার বিয়ানীবাজার খানায় জুবের আহমদ ও রুবেল আহমদের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরও ১৫ জনকে আসামী করে থানায় মামলা (০৭-২৪-০১-১৭) দায়ের করা হয়।

বিয়ানীবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আবুল বাশার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান বলেন, উত্তেজিত গ্রামবাসীকে ছত্রবঙ্গ করতে পুলিশ দুই রাউন্ড শটগানের গুলি নিক্ষেপ করে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তিনি বলেন, একটি অভিযোগ তদন্ত করতে গেলে পুলিশের উপর বিবাদীরা হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় এসআই দেবাশিষ বাদী হলে থানায় মামলা দায়ের করেন।