চুরি করা গরু জবাই করে কসাইখানায় বিক্রির অভিযোগে ১জনকে গ্রেফতার করেছে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত অপর আসামীরা পলাতক রয়েছে। গ্রেফতারকৃত রুহেল আহমদ (৩৫) কে সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, বিয়ানীবাজার উপজেলার শেওলা ইউপির ঢেউনগর গ্রামের গোয়ালঘর থেকে গত শুক্রবার একসাথে ৩টি গরু চুৃরি হয়। এ ঘটনায় গরুর মালিক জিবান আহমদ থানায় সাধারণ ডায়রী করে খোঁজাখুজি শুরু করেন। রবিবার দুপুরে তিনি পৌরশহরের কিচেন মার্কেটস্থ কসাইখানায় গিয়ে চুরি হওয়া একটি গরুর পা, মাথা ও রশি সনাক্ত করেন। এরপর বিষয়টি তিনি পুলিশকে অবহিত করলে গা ঢাকা দেন কসাইখানার মালিক সুমন। এ ঘটনায় রাতে জিবান আহমদ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রধান আসামী ও গ্রেফতার রুহেল আহমদ চুরি করা গরু জবাই করে মাংস বিক্রি করছেন বলে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান।

মামলার অপর আসামী জকিগঞ্জের (বর্তমানে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের মুফচ্ছিল মার্কেট) কসাই সুমন (৩৬) ও একই এলাকার শাহগলি কোনাগ্রামের হবি আলীর ছেলে তাজ উদ্দিন (৩৯) পলাতক। গরু চোর গ্রেফতারের খবরে থানায় ভূক্তভোগী মানুষের ভিড় লেগেছে।

বিয়ানীবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মেহেদী হাসান জানান, গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে স্থানীয়ভাবে চুরি হওয়া গরুর বিষয়ে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

অষ্টম বর্ষে পদাপর্ন করলো বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রথম অনলাইন পত্রিকা ‘বিয়ানীবাজার নিউজ২৪