শনিবার সারাদেশে পালিত হবে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎসব ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ। ত্যাগের মহিমায় দিবসটি উদযাপন করবেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। ঈদ উদযাপনের আনন্দ মূলত শুরু হয় ঈদের নামাজ পড়ার মধ্য দিয়ে, নামাজ শেষে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন মুসলমানরা। কিন্তু করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের কারণে ঈদুল ফিতরের ন্যায় এবারও ঈদুল আজহার নামাজের জামাতও মসজিদে আদায় করা হবে।

জানা গেছে, সরকারের নির্দেশনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কারণে বিয়ানীবাজারের বেশীরভাগ ঈদগাহে ঈদের জামাত অনুষ্টিত হবে না। আর তাই উপজেলার বিভিন্ন ঈদগাহ মাঠের পরিবর্তে মসজিদে মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে সেসব মসজিদগুলোতে ঈদ জামাতের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ঘোষণা করা হয়েছে জামাতের সময়সূচি। তবে এবারও করোনা সংক্রমণের কারণে উপজেলার বৃহৎ কসবা ইমামবাড়ি ঈদগাহ এবং সুপাতলাস্থ ওসমানী স্টেডিয়ামে ঈদের নামাজ আদায় করা হবেনা।

যখন যেখানে ঈদের জামাত- 

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, কসবা কেন্দ্রীয় বড় জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, দুবাগ বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৭টা ২০ মিনিটে, দক্ষিণ দুবাগ বায়তুল আমিন জামে মসজিদ ও মেওয়া ত্রিমুখী জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে, খলাগ্রাম শেখ মোহাম্মদ জামে মসজিদে সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে দক্ষিণ মাথিউরা কান্দিগ্রাম জামে মসজিদ ও দক্ষিণ মাথিউরা আরেঙ্গাবাদ জামে মসজিদ সকাল সাড়ে ৭টায়, উত্তর চরিয়া জামে মসজিদ সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে, নালবহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, সিলেটিপাড়া পুরাতন জামে মসজিদে ৭টা ৪৫ মিনিটে, বাঙ্গালহুদা জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, মোল্লাপুর জামে মসজিদ ও মোল্লাপুর মোল্লাগুষ্ঠি জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, সীমান্তবর্তী নওয়াগ্রাম জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭ টায়,

(উপজেলার বিভিন্ন  মসজিদে ঈদের নামাজের সময়সূচী জানার সাথে সাথেই এ প্রতিবেদননে সংযুক্ত করা হবে)।

এবিটিভির সর্বশেষপ্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে বৈদ্যুতিক তার ছিড়ে ৩টি সিএনজি অটোরিক্সায় আগুন, একজন চালক আহত