বিয়ানীবাজার নিউজ ২৪। ২৫ জানুয়ারি ২০১৭।

বিয়ানীবাজার উপজেলার দুবাগ ইউনিয়নের খাড়াভরা এলাকায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে গ্রামবাসী ফটিক মিয়ার পাতা ফাদে এক সাথে তিনটি মেছোবাঘ ধরা পড়ে। বুধবার সকালে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক মানুষ বাঘ দেখতে ফটিক মিয়ার বাড়িতে ভীড় করেন। বিকাল চারটার দিকে বনভিভাগ ভাগগুলো উদ্ধার করে।

জানা যায়, ফটিক মিয়ার বাড়ির পাশের জঙ্গলে বন বিড়াল, মেছো বাঘ ও বাঘডাশ রয়েছে। বাড়ির হাঁস-মোরগ এ বন্যপ্রাণি ধরে নিয়ে যায়। গৃহপালিত পশু-পাখি রক্ষা করতে ফটিক মিয়া হাঁস খাঁচায় রেখে ফাঁদ পাতেন। এতে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এক সাথে তিনটি মেছো বাঘ আটকা পড়ে। বাঘগুলো গর্জন করতে থাকলে ফটিক মিয়া রাতে বের হয়ে দেখেন এক সাথে তিনটি বাঘ তার খাঁচায় আটকা পড়েছে।

সকালে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে আশপাশের এলাকার নরনারী মেছো বাঘ দেখতে ফটিক মিয়ার বাড়িতে ভীড় করেন। গ্রামবাসী পলাশ আফজাল বলেন, জঙ্গলের পাশ^বর্তী বাড়িতে এসব বাঘ প্রায় হানা দিয়ে হাঁস-মোরগ ধরে নিয়ে যায়। তাদেও উৎপাত থেকে বাঁচতে ফাঁদ পাতা হয়েছিলো।

এদিকে সিলেট জেলা বন কর্মকর্তা ইসলাম উদ্দিন দলবল নিয়ে বিকাল চারটার দিকে খাড়াভরা এলাকার ফটিক মিয়া বাড়ি থেকে খাঁচায় আটক বাঘগুলো উদ্ধার করে সিলেট নিয়ে যান। তিনি জানান, মোলভীবাজারের লাউয়া ছড়া জাতীয় উদ্দানে বাঘগুলোকে অবমুক্ত করা হয়ে।