হঠাৎ করে ভারত বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। আর এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর বিয়ানীবাজার পৌরশহরসহ উপজেলার ছোট-বড় হাট-বাজারে রাতারাতি রান্নায় অত্যাবশ্যকীয় মসলাজাতীয় এ পণ্যটির দাম বেড়ে গেছে। এদিকে পেঁঁয়াজের দাম বাড়ার খবরে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) পৌরশহরের অধিকাংশ বাসিন্দারা খুচরা দোকান থেকে পেঁয়াজ সংগ্রহ করে রাখেন। ওইদিন অনেকেই ৪২-৪৮ টাকা দরে পেঁয়াজ ক্রয় করেন।

মাত্র একদিনের ব্যবধানে কেজিতে ৩২ থেকে ৩৮ টাকা বেড়ে দেশি পেঁয়াজ বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকায়। পেঁয়াজের বাড়তি দামে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্রেতা ও বিক্রেতারা। তারা বলছেন, বাজারে পেঁয়াজের সংকটে দাম বেড়েছে। মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে পৌরশহরসহ উপজেলার ছোট-বড় হাট-বাজার ঘিরে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

অন্যদিকে, মাত্র একদিনের ব্যবধানে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৩০ টাকা পর্যন্ত। বর্তমানে আমদানি করা পেঁয়াজ এসব বাজারে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৮০ টাকায়। এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। ক্রেতারা বলছেন, বাজারে পেঁয়াজের সংকট আছে এর মধ্যে ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা আসায় বাজারে প্রভাব পড়েছে। এখন বাধ্য হয়ে ৩০ টাকারও বেশি দরে পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

সময় বাঁচাবে আর উৎপাদন ব্যয় কমাবে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ