বিয়ানীবাজারের ১১টি স্থানে একযোগে পুলিশের উদ্যোগে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ বিষয়ক সচতেনতামূলক সভা অনুষ্টিত হয়েছে। “নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে, আপনার পুলিশ আপনার পাশে” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সারা দেশের ন্যায় সিলেটের বিয়ানীবাজার থানার ১০টি ইউনিয়ন এবং ১টি পৌরসভায় এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

পৃথক এসব সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মাহবুব আলম, বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিলে­াল রায়, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হকসহ পৌরসভা ও ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা বিট অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশের উদ্যোগে এবং স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান-সদস্যদের সহায়তায় অনুষ্ঠিত ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত এসব সভায় উপস্থিত নেতৃবৃন্দসহ মুরব্বীয়ান-যুবক, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গসহ সবাই যার-যার এলাকায় ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ করতে সবধরণের সহায়তা করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়াও আইনশৃংখলা বাহিনীকে সহায়তা করতেও কাজ চালিয়ে যাবেন এলাকার লোকজন।

পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে সারাদেশের ন্যায় বিয়ানীবাজার উপজেলার পৌরসভার হলরুমে অনুষ্টিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত মেয়র ছায়ফুল আলম ঝুনু। সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবাদ আহমদ, কাউন্সিলার নাজিম উদ্দিন, কাউন্সিলার সাহাব উদ্দিন, কাউন্সিলার আকছার হোসেন, কাউন্সিলার আব্দুল কাইয়ুম, বিট অফিসার এসআই জাফর প্রমুখ।

আলীনগর ইউনিয়নে অনুষ্টিত সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হারুন হেলাল চৌধুরী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ।

চারখাইয়ে অনুষ্টিত সভায় উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান মাহমুদ আলী, এসআই হাবীব উল­াহ, শেওলায় চেয়ারম্যান জহুর উদ্দিন, ইউপি সদস্য মাহমুদুল হাসান এরশাদ, দুবাগে চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, এসআই রুমেন, মুড়িয়ায় চেয়ারম্যান আবুল খায়ের, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তুতিউর রহমান খান, মোহাম্মদ হোসেন খসরু, লাউতা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান গৌছ উদ্দিনসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ,সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি, নারী ও শিশু অধিকার কর্মী, স্থানীয় নারী ও স্কুল-কলেজের ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-